রাণীনগরে অসহায় মানুষের পাশে- সাংসদ ইসরাফিল

 সুকুমল কুমার প্রামানিক, রাণীনগর (নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর রাণীনগর উপজেলায় করোনা ভাইরাসের কারনে কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায় দুঃস্থ গরীব মানুষের পাশে দাড়িয়েছেন নওগাঁ-৬ (রাণীনগর-আত্রাই) আসনের সংসদ সদস্য মো: ইসরাফিল আলম। রাণীনগর উপজেলার খেটে খাওয়া দিনমজুর, শ্রমিক, ভ্যান চালক, ফেরিওয়ালা, ভবোঘুরে, চায়ের দেকানদার, অসহায় ও দুঃস্থ গরীব মানুষদের বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দিচ্ছেন খাদ্য সামগ্রী। সাংসদ নিজেই রাণীনগর উপজেলায় মানবিক খাদ্য সহায়তা কেন্দ্র চালু করেছেন। গত ২৯ মার্চ থেকে এ পর্যন্ত সেখান থেকে রাণীনগর উপজেলায় প্রায় ১০ হাজার পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। তিনি ব্যতিক্রমী উদ্দ্যোগে হটলাইন চালু করেছেন, যার মাধ্যমে কেউ যোগাযোগ করলে তার খাবার পৌঁচ্ছে দেওয়া হচ্ছে। সাংসদ নিজে ও তার লোকজন বাড়ি বাড়ি খাদ্য সামগ্রী পৌঁচ্ছে দিচ্ছেন। প্রকৃত খাদ্য সংকটে থাকা মানুষদের তালিকা করে তাদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে খাদ্য সহায়তা। এছাড়া রাণীনগর উপজেলায় তার পক্ষ থেকে করোনা ভাইরাস পতিরোধে করনীয় বিষয়ক মাইকিং করা হয়েছে ও জনসচেতনতা মূলক লিফলেট বিতরণ ও জিবানুনাশক ম্প্রে করা হয়। নওগাঁ-৬ (রাণীনগর-আত্রাই) আসনের সংসদ সদস্য মো: ইসরাফিল আলম বলেন, প্রকৃত খাদ্য সংকটে থাকা পরিবার সকলেই খাদ্য সহায়তা পাবে। কোন পরিবার না খেয়ে থাকবে না। করোনা ভাইরাসের কারনে কর্মহীন হয়ে পড়া খেটে খাওয়া দিনমজুর, শ্রমিক, ভ্যানচালক, ফেরিওয়ালা, ভবোঘুরে, চায়ের দেকানদার, অসহায় দুঃস্থ গরীব এমন পরিবারের তালিকা করে বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দিচ্ছি। তাছাড়াও সর্বসাধারণের জন্য হটলাইন চালু করেছি। যার মাধ্যমে কেউ যোগাযোগ করলে তার খাবার পৌঁচ্ছে দেওয়া হচ্ছে। সাংসদ আরো বলেন, একটি পরিবার যাতে পুরো সপ্তাহ খেতে পারে এই জন্য খাদ্য সামগ্রী হিসাবে চাল, ডাল, আলু, তেল, লবণ, মরিচ সাবান দিয়ে একটি প্যাকেট তৈরি করে বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। এ সংকটকালীন সময় পর্যন্ত যত খাদ্যের প্রয়োজন হবে তাদের কাছে খাদ্য সরবরাহ করা হবে। এছাড়া করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সকল মানুষকে খুব প্রয়োজন ব্যতীত বাইরে বের না হওয়ার ও সর্বদা সতর্কতা অবলম্বন করে চলা এবং সরকারি নির্দেশনা মেনে চলার আহবান জানিয়েছেন তিনি।