রাজশাহী নগরে ছিনতাই হওয়া ৩২ লাখ টাকা উদ্ধার, গ্রেপ্তার ৩

সৈয়দ মাসুদ, রাজশাহী প্রতিনিধি: বোয়ালিয়া থানার ওসি নিবারুণ চন্দ্র বর্মণ জানান এই ঘটনায় ভিভো ব্রাণ্ডের মোবাইলের শোরুমের কর্মচারী ফয়সাল ও সোহেলকে পুলিশ হেফাজতে রেখে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। পরে তাদের দেয়া তথ্যে কাশিয়াডাঙ্গা এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৩২ লাখ টাকা উদ্ধার করা হয়। এ সময় ডলার নামে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

বাকি টাকা উদ্ধারে অভিযান চলছে। এ ছিনতাইয়ের সঙ্গে ভিভোর দুই কর্মচারি জড়িত বলে জানান তিনি। দুপুরে রাজশাহী নগরের বোয়ালিয়া থানার রাণীবাজার অলোকার মোড়ে মোবাইল শো-রুম ভিভোর কর্মচারীর কাছ থেকে ৩৩ লাখ টাকাসহ ব্যাগ ছিনিয়ে নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। ভিভোর শো-রুমের মালিক অঞ্জন কুমার রায় বলেন, তার দুই কর্মচারি ফায়সাল ও সোহেল দুইটি ব্যাগে ৩৭ লাখ ৪৩ হাজার ৮০০ টাকা নিয়ে ডাচ বাংলা ব্যাংকে যাচ্ছিল।

ফায়সালের কাছে যে ব্যাগ ছিল তাতে ৩৩ লাখ ও সোহেলের কাছের ব্যাগে ৪ লাখ ৪৩ হাজার ৮০০ টাকা ছিল। তারা দুইজনে রাস্তার পাশ দিয়ে শো রুম থেকে ১০০ গজ দুরে ব্যাংকে যাচ্ছিলেন। তিনি আরও বলেন, তারা শো-রুম থেকে বের হয়ে ২০ গজ দুরে রেমন্ড শো রুমের সামনে দুই মোটরসাইকেল আরোহী ফায়সালের কাছ থেকে ব্যাগ ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়ে যায়।

ওই ব্যাগে ৩৩ লাখ টাকা ছিল। আর সোহেলের ব্যাগে ছিল ৪ লাখ ৪৩ হাজার ৮০০ টাকা। সেই ব্যাগ আছে। ছিনতাইকারি দুইজনই হেলমেট পড়া ছিল। বোয়ালিয়া থানার ওসি নিবারুণ চন্দ্র বর্মণ জানান, সিসিটিভির ফুটেজ দেখে ছিনতাইকারিদের চিহ্নত করার চেষ্টা করা হচ্ছে। এছাড়াও ওই দুই কর্মচারিকে পুলিশ হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে।

এ ঘটনার সঙ্গে শো রুমের কর্মচারি কেউ জড়িত রয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলেও জানান তিনি। এদিকে, নগরীতে দিনদুপুরে ছিনতাই হওয়া ৩৩ লাখ টাকার মধ্যে ৩২ লাখ উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে বোয়ালিয়া থানা পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাতে বোয়ালিয়া থানা পুলিশের একটি দল অভিযান চালিয়ে এই টাকাগুলো উদ্ধার করে।

বোয়ালিয়া থানার ওসি নিবারুণ চন্দ্র বর্মণ জানান এই ঘটনায় ভিভো ব্রাণ্ডের মোবাইলের শোরুমের কর্মচারী ফয়সাল ও সোহেলকে পুলিশ হেফাজতে রেখে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। পরে তাদের দেয়া তথ্যে কাশিয়াডাঙ্গা এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৩২ লাখ টাকা উদ্ধার করা হয়। এসময় ডলার নামে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকি টাকা উদ্ধারে অভিযান চলছে বলে জানান তিনি।