যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি ওয়েবসাইটে সাইবার হামলা

ডেস্ক রিপোর্টঃ

ইরানের আইআরজিসির কুদস ফোর্সের কমান্ডার মেজর জেনারেল কাসেম সোলেমানিকে হত্যার প্রতিশোধ হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি ওয়েবসাইটে সাইবার হামলা চালানো হয়েছে। ইরানের পক্ষে এ হামলা চালানো হয়েছে। এমন দাবি করেছে ওই হ্যাকার গ্রুপটি।

শনিবার (০৪ জানুয়ারি) রাতে ফেডারেল ডেপোজিটরি লাইব্রেরি প্রোগ্রামের (এফডিএলপি) ওয়েবসাইট হ্যাক করা হয়। এ তথ্য নিশ্চিত করে জানায় যুক্তরাজ্যের ডেইলি স্টার।

এই ওয়েবসাইট হ্যাক এর পরে সতর্কবার্তায় লেখা হয়েছে, ইরানের সাইবার সক্ষমতার এটা সামান্য একটি অংশ মাত্র।

এটা ইসলামিক রিপাবলিক অব ইরানের পক্ষ থেকে বার্তা। আমরা এ অঞ্চলে আমাদের বন্ধুদের সহায়তা বন্ধ করবো না।ফিলিস্তিন এবং ইয়েমেনে নির্যাতিত জনগণের প্রতিও সহায়তা অব্যাহত থাকবে। সিরিয়ার সরকার এবং ইরকি জনগণের পাশাপাশি তাদের সরকারের প্রতিও থাকবে সমর্থন। বাহরাইনে নির্যাতিতদের পাশাপাশি লেবানন এবং ফিলিস্তিনের প্রতিরোধ সংগঠনগুলোর প্রতিও সমর্থন অব্যাহত থাকবে। তারা সবসময় আমাদের সহায়তা পাবেন।

তাদের প্রস্তুতির কথা জানিয়ে ইরান সাইবার সিকিউরিটি গ্রুপ হ্যাকারসরা হুমকি দিয়ে বলে আমরা সবসময়ই প্রস্তুত আছি। হামলা চলবে। ওয়েবসাইটটি হ্যাকের পরে সেখানে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিকৃত একটি ছবি ঝুলিয়ে দেওয়া হয়।

এদিকে সাইবার হামলার পর থেকেই ফেডারেল ডেপোজিটরি লাইব্রেরি প্রোগ্রামের ওয়েবসাইটে ঢোকা যাচ্ছিল না। তবে যারা এ ওয়েবসাইট হ্যাক করেছেন তার যে ইরানেরই হ্যাকার তার কোনো সঠিক তথ্য পাওয়া যায়নি।

এর আগে বাগদাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মার্কিন হামলায় মে. জেনারেল কাসেম সোলেমানির নিহত হওয়ার পর শনিবার (০৪ জানুয়ারি) রাতে ইরাকের বাগদাদে মার্কিন দূতাবাস ও সালাহউদ্দিন প্রদেশের মার্কিন বিমানঘাঁটিতে একযোগে ৫টি রকেট হামলা চালানো হয়েছে। এতে এখন পর্যন্ত ৫ জন আহত বলে জানা গেছে। আর সোলেমানি নিহত হওয়ার ঘটনায় আসন্ন প্রতিশোধের ইঙ্গিত জানিয়ে পবিত্র মসজিদের চূড়ায় ‘যুদ্ধের লাল ঝাণ্ডা’ উড়িয়েছে ইরান।

এদিকে ইরানের ৫২টি গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনায় হামলার হুশিয়ারী জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।