যশোররে শার্শার সীমান্তবর্তী ইছামতি নদী থেকে যুবকের গুলবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার

জসিম উদ্দিন, বেনাপোল প্রতিনিধি : যশোররে শার্শার সীমান্তবর্তী ইছামতি নদীতে শরিফুল ইসলাম (২৫) নামে এক যুবকের গুলবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার (১০জুন) সকাল ১১টার সময় এলাকাবাসি পাঁচভুলোট গ্রামের গাজীপাড়া ইছামতি নদীতে লাশটি দেখতে পেয়ে বিজিবি ও পুলিশ কে খবর দিলে তারা মরদেহটি উদ্ধার করে। নিহত শরিফুল পুটখালী রাজগঞ্জ গ্রামে মৃত ইসহাক এর ছেলে।

তার বুকে গুলির চিহ্ন রয়েছে। পাঁচভুলোট গ্রামের নিসার আলী জানান, বুধবার দুপুরে স্থানীয় লোকজন নদীতে গেলে নিহতের মরদেহটি ভাসতে দেখে বিজিবিকে খবর দয়ে। ঘটনাস্থলে বিজিবি গিয়ে তার মরদেহ দেখে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ এসে ঘটনাস্থল থেকে মরদেহটি উদ্ধার করে। স্থানীয়রা জানান,গত ৮ জুন যুবকটি নিখোঁজ হয়। তার আত্নীয় স্বজনরা অনেক খােঁজাখুঁজি করেও তার কোন সন্ধান পায়নি। দুই দিন পর পাঁচ ভুলোট গ্রামের গাজিপাড়া ইছামতি নদীতে মরদেহটি ভাসতে দেখে।

সে ভারত থেকে মাঝে মধ্যে গরু আনতে যায়। নিহত যুবকের চাচা বলনে, নিখোঁজ হওয়ার রাতে রাজগঞ্জ গ্রামের তাজুল এর সাথে বাহির হয়। তাজুল বিভিন্নি সময়ে বিভিন্নি লোকজন দিয়ে ভারত থেকে গরু ও মাদকদ্রব্য বাংলাদেশে প্রবেশ করান। শরফিুল তার লোক বলে সীমান্তরে একাধকি সূত্র জানান। নাভারন র্সাকেল এএসপি ইমরান খান ও র্শাশা থানার ভারপ্রাপ্ত র্কমকর্তা বদরুল আলম এবং বিজিবি নায়েব সুবেদার মজিবুর রহমানের উপস্থিতে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

বাগআঁচড়া পুলিশ ক্যাম্পের ইনর্চাজ আনারুল ইসলাম জানান, বিজিবি ও স্থানীয়দের মাধ্যমে মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য যশোর জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়ছে। কি কারনে তাকে হত্যা করা হলো ময়নাতদন্তের রিপোর্ট না দেখে নিশ্চিত করা যাচ্ছে না। রিপোর্ট পেলে প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে তবে তার বুকে গুলির চিহ্ন রয়েছে বলে তিনি জানান।