মোহনগঞ্জে হাওরের ভাঙ্গা রাস্তার ইট চুরি

জাহাঙ্গীর আলম, নেত্রকোণা প্রতিনিধি: নেত্রকোণার মোহনগঞ্জ হাওরের রাস্তার কাজের ইট চুরি করার সময় হাতে নাতে ধরা পড়েছে তদারকিতে থাকা শহীদ মিয়া ও খায়রুল ইসলাম। উপজেলার তেতুলিয়া গাগলাজুর সড়কের তেতুলিয়া এলাকায় শনিবার দুপুরে ইট বসানো সময় এলাকাবাসীর হাতে ধরা পড়ে তারা।

জানা গেছে, তেতুলিয়া গাগলাজুর ১১কি.মি. রাস্তার বেহাল দশার কারণে জেলা এক্সচেঞ্জ থেকে ইট বসিয়ে মেরামতের কাজ চলছে। এই কাজের তদারকির দায়িত্ব পড়ে তেতুলিয়া গ্রামের নওয়াব আলী ছেলে শহীদ মিয়া ও নেত্রকোণা পৌর শহরের সাতপাই এলাকার খায়রুলের উপর। তারা দুজন মিলে লড়িতে ২হাজার করে ইট এনে ১ থেকে ২শত ইট রাস্তায় বসিয়ে বাকি ইট শহীদের বাড়িতে নিয়ে যায়। এতে রাস্তার কাজ কিছুই হয়নি। এই রাস্তায় ডিঙ্গাযোতা হাওরের কয়েক হাজার হেক্টর বোরো ফসলের ধান উঠে। রাস্তাটি ঠিক না হওয়ায় চরম সমস্যায় রয়েছে কৃষক।

এ সময় এই রাস্তার ইট চুরি করে নিয়ে বাড়ির কাজ করছেন শহীদ। আর এতে সহযোগিতা করছে লেবার সাব সাবকন্ট্রাকটর খায়রুল। শনিবার ২শত ইট রাস্তায় পেলে বাকি ইট শহীদের বাড়িতে নেওয়ার সময় বাঁধা দেয় এই রাস্তার স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে কাজে নিয়োজিত তৌফিক, রহমত উল্লাহ, আমিরুল। এলাকার ধান ব্যবসায়ী রুহুল আমিন জানান, গত কয়েকদিন যাবৎ রাস্তার ইট এনে অল্প কিছু রাস্তায় বিছিয়ে বাকি ইট শহীদের বাড়িতে নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে আটক দুটি লরির ড্রাইভার কানাই বিল ও সুনীল হাজং জানান, ইট নিয়ে আসার পর প্রতিদিন কিছু ইট রাস্তায় দিয়ে বাকি ইট শহীদের বাড়িতে নিতে বলেন খায়রুল ও শহীদ, আর আমরা তাদের কথা মতোই এই কাজ করি।

উপজেলা ইঞ্জিনিয়ার ইমরান হোসেন জানান, রাস্তার অবস্থা খুবই খারাপ। হাওরের ধান কৃষকের ঘরে তোলার জন্য ভাঙ্গা রাস্তায় ইট বসানো হচ্ছে। ইট চুরির বিষয়ে সত্যতা নিশ্চিত করে করে তিনি আরও বলেন, ইউএনওকে জানানো হয়েছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।