মোবাইল ফোনের মাধ্যমে কাতার প্রবাসী প্রেম; বিয়ে ঠিক করতে গিয়ে লাশ হয়ে হয়ে ফিরলেন ১০জন

বুলবুল আহমদ, নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ গত ৬মার্চ বৃহস্পতিবার সকাল ৭ টায় দূর্ঘটনাটি ঘটেছে। খবর পেয়ে শেরপুর হাইওয়ে থানা পুলিশ, নবীগঞ্জ থানা পুলিশ ও নবীগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের একটি দমকল বাহিনী উদ্ধার কাজ পরিচালনা করেন। পরে রাত ১১টায় ময়না তদন্ত ছাড়াই মৃতদেহ স্বজনদের নিকট হস্তান্তর করে শেরপুর হাইওয়ে থানা পুলিশ।

পুলিশ জানা জানায়, নারায়নগঞ্জ থেকে ছেড়ে আসা (ঢাকা মেট্টো- চ-১৯৫৪৬২) একটি মাইক্রোবাস যুগে সিলেট বিভাগের সুনামগঞ্জ জেলার দিরাই থানার উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হয়ে ঢাকা- সিলেট মহাসড়কের নবীগঞ্জ উপজেলার কান্দিগাঁও নামক স্থানে বেপরোয়া গতির ফলে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে একটি গাছের সাথে ধাক্কা লেগে ঘটনাস্থলে ৮জন ও হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে ২ জন নিহত হন।

নিহতরা হলেন, ফতুল্লা থানার মৃত ইদ্রিস মিয়ার পূত্র মোঃ মহসিন মিয়া (৫৭), মৃত আশরাফ আলীর পুত্র মোঃ আব্বাস উদ্দিন (৫০) ও তার দুই ছেলে মোঃ ইমন হোসেন (২৫), মোঃ মাহবুব হোসেন রাব্বি (২১), মোঃ আবুল হোসেনের পুত্র মোঃ রাজিব মিয়া (২৫), মোঃ গনি তালুকদারের পুত্র মোঃ খলিল মিয়া (৩০), বরগুনা জেলার আমতইল থানার মোঃ তোতা খাঁর পুত্র ইমরান হোসেন (২৬), বরিশাল জেলার মোঃ মজিবুর রহমানের স্ত্রী মোছাঃ আছমা বেগম (৩৫) , ঘটনাস্থলে মৃত্যুবরণ করেন।

তাৎক্ষনিক আশঙ্কাজনক অবস্থায় বেলায়েত হোসেনের স্ত্রী সুমনা বেগম (৩৫) ও বেলায়েত হোসেনের মেয়ে খাদিজা আক্তার (৪) কে সিলেট ওসমানী মেডিলে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষনা করেন।

উল্লেখ্য, নিহত ইমন হোসেন কাতার প্রবাসী ছিলেন। প্রবাসে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠেছিলো সুনামগঞ্জ দিরাই উপজেলার জনৈক এক ব্যক্তির মেয়ের সাথে। দেশে আসিলে বিয়ের দিন তারিখ ধার্য্যকরার জন্য নারায়নগঞ্জ থেকে মাইক্রোযুগে কনের বাড়ির উদ্দেশ্যে যাত্রা পথে মর্মান্তিক সড়ক দূর্ঘটনাটি ঘটে।

এ ব্যাপারে শেরপুর হাইওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ মো. এরশাদুল হক ভূঁইয়া দূর্ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, বিষয়টি খুবই মর্মান্তিক। খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয় এবং আহতদের সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। শেষে নিহতদের লাশ স্বজনদের নিকট ময়না তদন্ত ছাড়াই রাত সাড়ে ১১টায় হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।