মোংলা বন্দরে জাহাজে প্রকৌশলীর মৃত্যু

মাহফুজুর রহমান বাপ্পী, বাগেরহাট জেলা প্রতিনিধি:  বাগেরহাটের মোংলায় জাহাজে অসুস্থ হয়ে ফ্যান হংজি (৪৩) নামে এক চীনা নাগরিক মারা গেছেন। বুধবার দিনগত রাত দুইটা ২০ মিনিটে মোংলা বন্দরের ফেয়ারওয়ে বয়ার বাইরে সিংঙ্গাপুরের পতাকাবাহি ইপিক সেন্ট কিটস্ নামের একটি বানিজ্যিক জাহাজে তার মৃত্যু হয়। তিনি এই জাহাজের প্রধান প্রকৌশলীর দায়িত্বে ছিলেন। বৃহষ্পতিবার সকালে চীনা নাগরিক ফ্যান হংজির মরদেহের ময়না তদন্ত বাগেরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে সম্পন্ন হয়েছে।

হ্নদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে ফ্যান হংজির মৃত্যু হয়েছে বলে বন্দরের মেডিকেল টিম প্রাথমিকভাবে ধারনা করছে। তবে ময়না তদন্তের পরই তার মৃত্যুর প্রকৃত কারন জানা যাবে। ১৯৭৭ সালের ১২ এপ্রিল ফ্যান হংজি চীনের হুবেই শহরে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি এই শহরের বাসিন্দা। মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষকে হারবার মাস্টার কমান্ডার ফকর উদ্দিন বলেন, বুধবার সকাল এগারোটা নাগাদ ভারত থেকে এলপিজি গ্যাস নিয়ে সিংঙ্গাপুরের পতাকাবাহি ইপিক সেন্ট কিটস্ নামের একটি বানিজ্যিক জাহাজ বন্দরের ফেয়ারওয়ে বয়ার বাইরে অবস্থান নেয়। সেখান থেকে সন্ধ্যায় জাহাজটির প্রধান প্রকৌশলী অসুস্থ হয়ে পড়ার সংবাদ বন্দরকে জানালে আমরা আমাদের একটি চিকিৎসক দল জাহাজে পাঠাই। চিকিৎসক দল সেখানে পৌছে নানা পরীক্ষা নিরীক্ষার পর রাত ২টা ২০ মিনিটে জাহাজের প্রধান প্রকৌশলী ফ্যান হংজিকে মৃত ঘোষণা করেন।

চীনা নাগরিক ফ্যান হংজি’র হার্ট এ্যাটাকে মৃত্যু হয়েছে বলে চিকিৎসকরা প্রাথমিকভাবে ধারনা করছে। বৃহষ্পতিবার সকালে চীনা নাগরিক ফ্যান হংজির মরদেহের ময়না তদন্ত বাগেরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে সম্পন্ন হবে। সিংঙ্গাপুরের পতাকাবাহি ইপিক সেন্ট কিটস্ এর স্থানীয় শিপিং এজেন্ট ইউনি গ্লোবাল বিজনেস লিমিটেডের ব্যবস্থাপক (হিসাব) আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, ভারত থেকে সিঙ্গাপুরের পতাকাবাহি এই বানিজ্যিক জাহাজটি এলপিজি গ্যাস নিয়ে মোংলা বন্দরের উদ্দেশ্যে রওনা হয়।

বুধবার সকাল এগারোটার দিকে জাহাজটি মোংলা বন্দরের বাইরে সাগরের হিরণ পয়েন্ট এলাকায় পৌছার পর জাহাজের প্রধান প্রকৌশলী ফ্যান হংজি হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন। এ সময় জাহাজে থাকা চিকিৎসকরা তাকে চিকিৎসাসেবা দিতে শুরু করেন। এর মধ্যে জাহাজটি বন্দরের ফেয়ারওয়ে বয়ার কাছে পৌছে বন্দর কর্তৃপক্ষকে প্রধান প্রকৌশলীর অসুস্থ হওয়ার খবর দিলে বন্দর কর্তৃপক্ষকে তাদের একটি চিকিৎসক দল জাহাজে পাঠায়। তারা এসে পরীক্ষা নিরীক্ষার পর মৃত বলে ঘোষণা করেন। বুধবার রাত পৌনে একটার দিকে মোংলা বন্দরে জাহাজটি এ্যাংকর করে আমরা তার মৃত্যুর খরব পুলিশকে জানালে পুলিশ তার মরদেহটি নিয়ে ময়না তদন্ত করতে বাগেরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

ময়না তদন্তের পর ফ্যাজ হংজির দেহটি খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের হিমঘরে রাখা হচ্ছে। করোনা পরিস্থিতির কারনে আপাতত তার মরদেহটি দেশে পাঠানো সম্ভব হচ্ছেনা। আন্তর্জাতিক বিমান চলাচল স্বাভাবিক হলে তার মরদেহ দেশে পাঠানো হবে। তিনি চীন দেশের নাগরিক। গত সাত মাস ধরে ফ্যান হংজি এই জাহাজের প্রধান প্রকৌশলীর দায়িত্বে ছিলেন।