মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে পিতা আটক

পারভেজ আলী, বেলকুচি (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি:সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে পিতাকে আটক করেছে র‍্যাব- ১২ সদস্যরা। গতকাল (বুধবার) র‍্যাব-১২ সিরাজগঞ্জের একটি আভিযানিক দল ঢাকার যাত্রাবাড়ীর পশ্চিম জনতা বাজার এলাকা হতে মেয়েকে ধর্ষণের মামলার আসামী মনিরুল ইসলাম (৪৫) কে আটক করে।

র‍্যাব ১২ সূত্রে জানা যায়, বেলকুচি থানাধীন চর হরিনাথপুর গ্রামে ১৫ বছর বয়সী মেয়েকে তার পিতা মনিরুল ইসলাম কর্তৃক ধর্ষণের অভিযোগে বেলকুচি থানায় ঐ কিশোরী বাদী হয়ে অভিযোগ দায়ের করে। অভিযোগে থেকে জানা যায় যে, ভূক্তভোগীর মায়ের বিবাহ বিচ্ছেদ হয়ে যাওয়ায় সে সৎ মা ও বাবার আশ্রয়ে বসবাস করছিল। প্রায় ১ বছর যাবত তার পিতা তাকে বিভিন্ন ভয়ভীতি ও প্রাণ নাশের হুমকি দিয়ে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে আসছে। সে পারিবারিক ও সামাজিক সম্মানের কথা বিবেচনা করে এতদিন সহ্য করে আসছিল। কিন্তু তার পাষন্ড পিতার নির্মম অত্যাচার অসহনীয় পর্যায়ে গেলে সে কোন উপায় না পেয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়াম্যান সোনিয়া সবুর আকন্দের সহযোগিতায় থানায় একটি মামল দায়ের করে। মামলার খবর শুনে পিতা মনিরুল ইসলাম পলাতক হয়। র‍্যাব-১২, সিরাজগঞ্জ ঘটনা সম্পর্কে অবহিত হয়ে আসামীকে গ্রেফতারের জন্য গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি করে। গতকাল মামলার আসামী মনিরুল ইসলামকে ঢাকার যাত্রাবাড়ীর পশ্চিম জনতা বাজার এলাকা হতে আটক করা হয়েছে।

বেলকুচি থানা অফিসার ইনচার্জ বাহাউদ্দীন ফারুকী বিপিএম /পিপিএম জানান, আমরা মেয়েকে ধর্ষনের মামলার আসামীকে র‍্যাব ১২ সদস্যদের আটকের বিষটি নিশ্চিত হয়েছি। তবে এখনও পর্যন্ত আমাদের কাছে হস্তান্তর করেনি। বিকাল নাগাত আসামীকে হস্তান্তরে কথা রয়েছে।

তাং২/৭/২০২০
০১৭৯৫৯০৩৯২৩