মেসিকে কিনতে রাজি ম্যান সিটি

৭০০ মিলিয়ন ইউরোতে মেসিকে বার্সেলোনা থেকে কিনতে রাজি ম্যানচেস্টার সিটি। সব আনুষ্ঠানিকতা নাকি সারা হবে শিগগিরই। ইউরোপিয়ান গণমাধ্যমগুলোতে এমন খবরই ভেসে আসছে। ঘটনা সত্য হলে মেসির চড়া দাম হাঁকিয়েও পার পাচ্ছে না কাতালান জায়ান্টরা। এদিকে, বার্সার সঙ্গে এ বিষয়ে আলোচনা করতে মেসির বাবা স্পেনে গেছেন বলে জানা গেছে।

ইভান রাকিতিচ যখন আনুষ্ঠানিকভাবে সেভিয়ায় ৪ বছরের চুক্তিপত্রে স্বাক্ষর করে তখন লিওনেল মেসিকে ছাড়াই মাঠে অনুশীলন করাচ্ছে বার্সেলোনার নতুন কোচ রোনাল্ড কোম্যান। গল্পের দৃশ্যায়নটা হতে পারতো একই ফ্রেমে। কিন্তু পারস্পারিক দ্বন্দ্বে ছবির মতই বিভক্ত এখন বার্সেলোনা।

মেসিকে বার্সা খুব সহজে ছাড়ছে না এটা নিশ্চিত। কিভাবে ছাড়বে, মেসিকে ছাড়লেই যে পুরো স্প্যানিশ লা লিগার গুরুত্ব কমে যাবে দর্শকদের কাছে। তাইতো কোনো সমঝোতা নয়। মেসিকে পেতে যে কারো লাগবে ৭০০ মিলিয়ন রিলিজ ক্লজ বলে ঘোষণা দিয়ে দিয়েছে কাতালান ক্লাবটা। এই ঘটনার একদিন পরই মেসিকে নিতে যারা ছিল সবচেয়ে আগ্রহী, সেই ম্যানচেস্টার সিটি কোচ পেপ গার্দিওলা নাকি এই অস্থির সময়ে মেসিকে বার্সেলোনা থেকে যেতেই পরামর্শ দিয়েছেন। তবে সাবেক গুরুর পরামর্শের কয়েক ঘণ্টা না যেতেই দলবদলের বাজারে শোরগোল। মেসিকে নিতে নাকি সেই ৭০০ মিলিয়ন ইউরোতেই রাজি ম্যানচেস্টার সিটি! এমন খবর ইউরোপিয়ান গণমাধ্যমে ভেসে আসছে।

কিছুদিন আগেই অবশ্য ফিফার নীতিমালা ভঙ্গ করে বড় আর্থিক জরিমানা গোনা ইংলিশ ক্লাবটি অবশ্য একাই মেসিকে কিনছে না। রিপোর্টে দাবি, মেসিকে কিনতে একত্র হয়ে টাকা দিচ্ছে ম্যানচেস্টার সিটি ফুটবল গ্রুপের বাকি সদস্য দেশগুলোও। শেষ পর্যন্ত যদি ঘটনা সত্য হয় তবে আকাশ-কুসুম দাম চেয়েও পাড় পাচ্ছে না কাতালান জায়ান্টরা।

এদিকে মেসিকে বার্সেলোনাতে রাখতে নতুন প্রস্তাব দিয়েছে বার্সা প্রেসিডেন্ট। সেজন্য বার্সার সঙ্গে পরামর্শ করতে ইতোমধ্যে আর্জেন্টিনা থেকে স্পেনে পাড়ি দিয়েছেন মেসির বাবা। স্পেনেও নাকি মেসির বাবাকে দেখা গেছে। কাতালান ভিত্তিক সংবাদ সংস্থা মুন্দো দেপোর্তিভো এমনটাই দাবী করে সংবাদ প্রকাশ করেছে।

তবে মেসি যে সবার চেয়ে আলাদা। অনেক ভেবে চিন্তে যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে তা সহজে ভাঙ্গবে না বলে মনে করেন অনেক ফুটবল বোদ্ধারা। আর তাই যদি হয় তবে একগুঁয়ে বার্সেলোনাতে আগামী একবছর দেখা যাবে না মেসিকে। এখন পর্যন্ত করোনা টেস্ট ও দলের অনুশীলনে যোগ না দেয়া ‘এলএমটেন’ কে হয়তো এক বছর না খেলিয়েই বসিয়ে রাখবে ক্লাবটা!