মুক্তির আগেই ‘ছপাক’ নিয়ে আইনি জটিলতায় দীপিকা

কিছুদিন পরেই ছবির মুক্তি। তার আগে আইনি জটিলতায় দীপিকা পাড়ুকোনের আগামী ছবি ‘ছপাক’। এই ছবির প্রযোজকও দীপিকা। পরিচালক মেঘনা গুলজার। ফিল্মের এক প্রযোজক রাকেশ ভারতী গত শনিবার দীপিকা ও মেঘনার নামে স্বত্ত্বভঙ্গের অভিযোগ দায়ের করেছেন মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টে। রাকেশ ভারতীয় অভিযোগ, ছাপাকের স্ক্রিপ্ট তার। সেখান থেকে চুরি করে এই ছবি তৈরি করা হয়েছে।

 

অভিযোগে রাকেশ দাবি করেছেন, তিনি ও তার ছেলে পরিকল্পনা করেছিলেন অ্যাসিড আক্রান্ত তরুণীর জীবন নিয়ে। ২০১৫ সালের মে মাসে ‘ব্ল্যাক ডে’ নামে একটি ছবি তারা রেজিস্ট্রেশনও করান। তার আরও দাবি, একাধিক অভিনেতার সঙ্গে এই ছবি নিয়ে কথা বলেছেন তিনি। তালিকায় রয়েছেন ঐশ্বরিয়া রায় বচ্চন, কঙ্গনা রানাওয়াত এবং ফক্স স্টার স্টুডিয়োজের সঙ্গে কথা হয়েছে ছবি প্রযোজনার জন্য।

 

 

রাকেশ জানিয়েছেন, ফক্স স্টার স্টুডিয়োজের অফিসে তার স্ক্রিপ্ট তিনি জমা করেছিলেন। এমনকী ‘কা প্রোডাকশন’ এবং ‘মৃগ ফিল্মস’র সঙ্গেও কথা হয়েছিল। এরা অনেকেই ছবিটি তৈরির আগ্রহ দেখিয়েছিলেন। তার অভিযোগ, এখান থেকেই কেউ স্ক্রিপ্টে কিছু পরিবর্তন করে এটিকে ‘ছাপাক’ নামে বিক্রি করে দেয়। যদিও দীপিকা বা ছাপাকের টিমের কেউই এ নিয়ে এখনও কোনও মন্তব্য করেননি।

 

ছপাকের সহ-প্রযোজনা করছে ফক্স স্টার স্টুডিয়োজ, দীপিকার কা প্রোডাকশন এবং মৃগ ফিল্মস। মেঘনা গুলজারের ছাপাক ছবিতে বাস্তবের অ্যাসিড আক্রান্ত তরুণী লক্ষ্মী আগরওয়ালের চরিত্রে অভিনয় করছেন দীপিকা। তার সঙ্গে ছবিতে দেখা যাবে বিক্রান্ত মাসিকে। ছবিটি ১০ জানুয়ারি মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে।