মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রীর স্ত্রীর দাফন সম্পন্ন

আব্দুল আলীম, গাজীপুর প্রতিনিধি : মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক এমপি এর স্ত্রী লায়লা আরজুমান্দ বানু লিলির দাফন সম্পন্ন হয়েছে। জোহরের নামাজের পর গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন গোরস্তানে তাঁকে দাফন করা হয়।

এর আগে গোরস্তান সংলগ্ন বায়তুল মোয়াজ্জাম জামে মসজিদ প্রাঙ্গনে মরহুমার নামাজে জানাযা অনুষ্ঠিত হয়। তাঁর নামাযে জানাযায় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক এমপি ,যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল এমপি, ইকবাল হোসেন সবুজ এমপি, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র জাহাঙ্গীর আলম, জিএমপি কমিশনার, গাজীপুরের জেলা প্রশাসক, গাজীপুর মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতিসহ আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ অংশগ্রহন করেন।

নামাজে জানাজায় মরহুমের একমাত্র ছেলে এটিএম মাজহারুল হক তুষার নামাজে জানাযায় ইমামতি করেন। করোনা ভাইরাসে (কোভিড-১৯ ) আক্রান্ত হয়ে ১৩ জুন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক এমপি এবং মন্ত্রীর স্ত্রী লায়লা আরজুমান্দ বানু সিএমএইচে ভর্তি হন। মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী সুস্থ হয়ে বাসায় ফিরে আসলেও লায়লা আরজুমান্দ বানুর অবস্থা গুরুতর হওয়ায় সিএমএইচে চিকিৎসাধীন ছিলেন। রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সি এমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ সকাল ৭.৪৫ টায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

১৯৪৯ সালের ৬ জানুয়ারি লায়লা আরজুমান্দ বানু গাজীপুরে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতার নাম শেখ মোবারক জান এবং মাতার নাম লাল বানু। ব্যক্তি জীবনে অত্যন্ত ধর্মপ্রাণ লায়লা আরজুমান্দ বানু। তিনি ১৯৭৩ সালে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হকের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। লায়লা আরজুমান বানু ২ কন্যা, এক পুত্র এবং ৬ জন নাতি-নাতনিসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।