মিঠাপুকুরে চুরির অভিযোগে গণপিটুনিতে নিহত ১

আমিরুল কবির সুজন, মিঠাপুকুর (রংপুর) প্রতিনিধিঃ রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলার শঠিবাড়ি বাজারের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান চুরির অভিযোগে এক নৈশ প্রহরীকে গণপিটুনি দিয়েছে লোকজন।

গণপিটুনির শিকার ওই নৈশ প্রহরীকে গুরুতর আহত অবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে, শনিবার চিকিৎসাধীন অবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ওই নৈশ প্রহরীর মৃত্যু হয়েছে।

এ ঘটনায় পৃথক দুটি মামলা হয়েছে। পুলিশ চুরির অভিযোগে একজনকে প্রেপ্তার করেছে।

নিহত ব্যক্তির নাম তছলিম উদ্দিন (৫০)। তিনি উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের শীতলগাড়ী গ্রামের মৃত. নিজাম উদ্দিনের ছেলে।

পুলিশ ও এলাকাবাসি সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার শঠিবাড়ী হাট গালামাল পট্টিতে নৈশ প্রহরী হিসেবে কাজ করেন তছলিম উদ্দিন। শনিবার ভোররাতে তার দায়িত্বপালন এলাকায় সাহেব আলী নামে একজন গালামাল দোকান চুরি হওয়ার সময় স্থানীয়রা এক চোরকে আটক করেন। আটক চোর রমজান আলী (১৪) পীরগঞ্জ উপজলার জীবনানন্দ গ্রামের মোকছেদ আলীর ছেলে।

উপস্থিত লোকজনেরা জানায়, নৈশ প্রহরী তছলিমও চুরির সাথে জড়িত। স্থানীয় জনতা ওই দুই জনকে গণপিটুনি দেয়। এতে তছলিম উদ্দিন গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার দুপুরে তিনি মারা যান।

মিঠাপুকুর থানার ওসি জাফর আলী বিশ্বাস বলেন, গালামাল দোকান চুরি এবং গণপিটুনিতে নিহতের ঘটনায় পৃথকভাবে দুটি মামলা হয়েছে। ইতিমধ্যে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। দুটি মামলার তদন্ত চলছে হত্যাকারীদের সনাক্ত করে গ্রেপ্তারের জোরালা অভিযান চলছে বলেও জানান তিনি।