মাসিমপুর ইউনিয়নে অনিয়ম বেড়েই চলছে, ভিজিএফ-এর চাল আটক

আমিরুল কবির সুজন, মিঠাপুকুর (রংপুর) প্রতিনিধি:  রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলার বালুয়া মাসিমপুর ইউনিয়নে একাধিক অনিয়মের উঠেছে। সরকারের জমি আছে ঘর নাই প্রকল্পে ওই ইউনিয়ন পরিষদ থেকে উপকার ভোগীদের তালিকা করে প্রকল্প বাস্তবায়নকারী সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তার দপ্তরে জমা দেয়া হয়।

প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উদ্যোগে জমি আছে ঘর নাই প্রকল্পের কাজ দৃশ্যমান। এই সুযোগে বালুয়া মাসিমপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ময়নুল হক একক ক্ষমতাবলে তালিকা থেকে প্রায় ১০/১৫ জন উপকারভোগীর নাম পরিবর্তন করেন। প্রকৃত উপকার ভোগীদের নাম বাদ দিয়ে নতুন করে তার পছন্দের নাম যুক্ত করে নতুন একটি তালিকা সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তার দপ্তরে জমা দেয়ার অভিযোগ এর সত্যতা মিলেছে।

এ বিষয়ে বালুয়া মাসিমপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ময়নুল হক এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি সন্তোষজনক উত্তর দিতে পারেন নি। এরমধ্যে আবারও পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে সরকারি বরাদ্দকৃত ভিজিএফ-এর চাল পাচারের সময় আটক করে স্থানীয় জনতা।

বুধবার রাতে উপজেলার বালুয়া মাসিমপুর ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা জানায়, বুধবার রাতে উপজেলার বালুয়া মাসিমপুর ইউনিয়নের বুজরুক সন্তোষপুর আকন্দটারী গ্রামে ভিজিএফের ৫বস্তাু (৩৭৫ কেজি) চাল রিক্সাযোগে পাচারের সময় আটকে দেয় এলাকাবাসী।

চালগুলি স্থানীয় মরাহাটি বাজারের দিকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। গ্রামবাসীর সন্দেহ হওয়ায় চালগুলি আটক করে প্রশাসনকে খবর দেয়। খবর পেয়ে মিঠাপুকুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে চালগুলি হেফাজতে নিয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য সাজু মিয়া ও গ্রাম পুলিশ সাদেক আলীর জিম্মায় রাখেন।

রিক্সাচালক জলিল মিয়া জানান, উদ্ধারকৃত চালগুলি সাজু নামে এক ব্যবসায়ীর। মিঠাপুকুর থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জাফর আলী বিশ্বাস বলেন, এ বিষয়ে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যাবস্থা নেয়া হবে।