মাধবদীতে মহিষাশুড়া ইউপি সদস্যের বিরোদ্ধে হামলা ও ভাংচুর

সুমন পাল, মাধবদী (নরসিংদী) প্রতিনিধিঃ মাধবদী থানার চৌদ্দপাইকা গ্রামে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে বাড়িঘর ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। মাধবদী থানায় অভিযোগের প্রেক্ষিতে জানাযায় চৌদ্দপাইকা গ্রামের সুরুজ মিয়ার ছেলে মোঃ মজিবুর রহমানের সাথে আটপাইকা গ্রামের মহিষাশুড়া ইউপি সদস্য ও মহিষাশুড়া ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মৃত তারা মিয়ার ছেলে আবুল হোসেন(৩৫) এর সহিত সামাজিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বিরোধ ছিল। সেই বিরোধের জের ধরে গত ৮ এপ্রিল বিকেল ৫টায় আবুল হোসেনের নেতৃত্বে মৃত চান মিয়ার ছেলে জসিম উদ্দিন (৪৪) ও মোঃ আব্দুল লতিফ(৪০), মৃত তাইজ উদ্দিনের ছেলে মোঃ আনার (৪০), মোমেনের ছেলে মোঃ রাকিব(২৮), খোরশেদের ছেলে মোঃ মাসুম (২৭), মৃত কাশেমের ছেলে আসান উল্লাহ সহ ১০/১২ জন সংঘবদ্ধ হয়ে দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে চৌদ্দপাইকা গ্রামের কবিরের বাড়ির সামনে মজিবুরের উপর হামলা চালিয়ে তাকে রক্তাক্ত জখম করে। তার ডাক চিৎকারে প্রতিবেশী রাসেল, কামাল মোল্লা, নিরব এগিয়ে এলে তাদেরও এলোপাথাড়ি মারধর করা হয়। এসময় বাবুল মোল্লার বসতঘর, কাদিরের বসতঘর, শাহজাহান মোল্লার বসতঘর, ইসমাইল মোল্লার বসতঘর, মাজহারুল ইসলামের বসতঘর, কামাল মোল্লার বসতঘর, ছাদু মোল্লার বসতঘর, হারুন মোল্লার বসতঘর ভাংচুর করে ঘরের আসবাবপত্র, বৈদ্যুতিক মিটার, স্বর্নলংকার ও নগদ টাকা সহ প্রায় তের লক্ষ টাকার ক্ষতিসাধন করে। এ বিষয়ে মাধবদী থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আবু তাহের দেওয়ান জানায় চৌদ্দপাইকা গ্রামে হামলা ও ভাংচুরের খবর পেয়েছি। এ ব্যাপারে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। সুষ্ঠ তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।