মাকে বাঁচাতে পুত্রের আর্তনাত

খোকন আহমেদ হীরা, গৌরনদী (বরিশাল) প্রতিনিধি : সু-চিকিৎসার মাধ্যমে গর্ভধারীনি মায়ের জীবন বাঁচাতে সমাজের বিত্তবান থেকে শুরু করে সরকারের সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও বরিশাল জেলার মানব দরদী জেলা প্রশাসকের কাছে সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছেন হতদরিদ্র দিনমজুর বাবুল খান।

বাবুল গৌরনদী উপজেলার সবার পরিচিত পত্রিকা বিক্রেতা হিসেবে কাজ করেছেন। বর্তমানে তিনি দিনমজুরের কাজ করছেন।

জানা গেছে, বাবুলের মা দীর্ঘদিন থেকে অসুস্থ্য হয়ে শষ্যাশয়ী। গর্ভধারীনি মায়ের চিকিৎসা করাতে গিয়ে নিজের সহায় সম্বল বিক্রি করে বাবুল এখন পুরোপুরি নিঃস্ব।

অর্থাভাবে এখন তার (বাবুল) মায়ের কোন চিকিৎসা হচ্ছেনা। তাই কোন উপায়অন্তুর না পেয়ে বর্তমানে সু-চিকিৎসার মাধ্যমে তার মাকে সুস্থ্য করার জন্য সকলের কাছে হাত পেতেছেন।

সূত্রমতে, গৌরনদী উপজেলার চন্দ্রহার গ্রামের দিনমজুর মৃত বেলায়েত আলী খানের পুত্র বাবুল খান। ছোট বেলা থেকেই দরিদ্র পিতার সংসারের হাল ধরতে বাবুল নেমে পরেন সংবাদপত্র বিক্রির কাজে।

দিন দিন পাঠক মহলে সংবাদ পত্রের চাহিদা কমে যাওয়ায় সম্প্রতি সময়ে সে পেশা বদল করে দিনমজুরি শুরু করেন।

গর্ভধারীনি মাকে নিয়ে চলছিল বাবুলের অভাবের সংসার। সে বিয়ে করে সংসার জীবন শুরু করলেও সে বিয়ে বেশিদিন টেকেনি।

অভাবের তারনায় স্ত্রী তাকে ছেড়ে চলে যায়। ওই সংসারে তার একটি কন্যা সন্তানও রয়েছে।

অভাব অনটনের সংসারে স্ত্রী বাবুলকে ছেড়ে গেলেও বাবুল তার মাকে ছাড়েনি। নিজের সামর্থের সবটুকু দিয়ে আগলে রেখেছেন বৃদ্ধ মাকে।

এমনি অবস্থায় ২০১৯ সালের জানুয়ারি মাসে বাবুলের মা সুরাতি বেগম (৭৫) হৃদরোগে আক্রান্ত হন। এতে তার কোমর থেকে শরীরের নিচের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ অচল হয়ে যায়। দরিদ্র অসহায় বাবুল নিজের শারীরিক পরিশ্রমে অর্জিত অর্থ ও পৈত্রিক ভিটেমাটি বিক্রি করে মায়ের চিকিৎসা চালায়।

কিছু দিন চিকিৎসা চালানোর পর তার মা একটু সুস্থ্য হয়ে ওঠেন। মায়ের চিকিৎসায় সহায় সম্বল হারিয়ে বাবুল তখন তার মাকে নিয়ে আশ্রয় নেয় পার্শ্ববর্তী উজিরপুর উপজেলার পশ্চিম বামরাইল গ্রামের মামার বাড়িতে।

অতিসম্প্রতি বাবুলের মা দ্বিতীয় দফায় ষ্ট্রোক করেন।

এবার তার সারাশরীর অচল হয়ে যায়। ফলে তিনি পুরোপুরি শষ্যাশয়ী অবস্থায় রয়েছেন।

সহায় সম্বল হারানো বাবুল নিজের শারীরিক পরিশ্রমের অর্থদিয়ে এতোদিন কোন মতে মায়ের চিকিৎসা চালিয়ে আসছিল।

গত কয়েকদিন ধরে তার মায়ের শরীরের বিভিন্নস্থানে পচন শুরু হয়েছে। এখন তার চিকিৎসায় অনেক অর্থের প্রয়োজন। হতদরিদ্র বাবুলের পক্ষে তা যোগার করা সম্ভব হচ্ছেনা। এ অবস্থায় তার গর্ভধারীনি মাকে বাঁচানোর জন্য বাবুল সবার কাছে হাত পেতেছেন।

বাবুলকে সাহায্য পাঠানোর ঠিকানাঃ মোঃ বাবুল খান, প্রয়তঃ মৃত আয়নাল বিশ্বাসের বাড়ি, গ্রামঃ পশ্চিম বামরাইল, পোঃ বামরাইল, উপজেলাঃ উজিরপুর, জেলাঃ বরিশাল।