মাওলানা হুসাইন’র স্বজনদের সমবেদনা জানাতে বাড়িতে এসপি ফরিদ উদ্দিন পিপিএম

সালমান শাহ, সিলেট প্রতিনিধি:  সিলেটের নয়া সড়ক মাদ্রাসার মুহাদ্দিছ সদ্য প্রয়াত মাওলানা হোসাইন আহমেদ এর স্বজনদের সমাবেদনা জানাতে চিকনাগুলস্থ তার বাড়িতে ছুটে গেলেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন পিপিএম।

পুলিশ সুপার মরহুম এর স্বজনদের শান্তনা দেন এবং তার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন।এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন হরিপুর মাদ্রাসার বড় হুজুর হরিপুর বাজার মাদ্রাসার সাইকুল হাদিস মুফতি মাওলানা মোহাম্মদ ইউসুফ শ্যামপুরী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (উত্তর) মোঃ মাহবুবুল আলম,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) মো: লুৎফর রহমান, কানাইঘাট সার্কেল মোঃ আবদুল করিম, জৈন্তাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ শ্যামল বনিক প্রমুখ। উল্লেখ্য মাওলানা হুসাইন আহমেদ গতকাল ২০ এপ্রিল (সোমবার) অপরাহ্নে সিলেট শহরে মারা যায়। তিনি একজন প্রখ্যাত আলেম ছিলেন।উনার মৃত্যুর পর জৈন্তাপুর সহ আশপাশ এলাকার ধর্মপ্রান মানুষের মাঝে শোকের ছায়া নেমে আসে।

হাজার হাজার মানুষ উনার জানাযায় অংশগ্রহনের জন্য প্রস্তুতি নিতে শুরু করে।পুলিশের নিকট এরকম আগাম তথ্য আসার সাথে সাথে সেজন্য পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন পিপিএম নিজেই তৎপর হয়ে উঠেন। তিনি জেলা প্রশাসক সহ সশস্ত্র বাহিনীর প্রতিনিধিগনের সাথে যোগাযোগ করেন ।পাশাপাশি মৃতের ছেলে হাফিজ মাওলানা মাসরুর আহমদ সহ স্থানী আলেম সমাজের নেতৃবৃন্দ এবং জনপ্রতিনিধিগনের সাথে আলাপ করে স্বল্প সংখ্যক মুসল্লিদের উপস্থিতে ধর্মীয় ভাবগম্ভীর্য বজায় রেখে জানাযার নামায ও দাফন কার্য সম্পাদনের জন্য সবার সহযোগীতা কামনা করেন ।

পুলিশ সুপারের অনুরোধে মৃতের পরিবার সহ স্থানীয় আলেম ওলামাগন সাঁড়া দিয়ে জানাযায় অধিক সমাগম ঠেকাতে মাগরিবের নামাজের পূর্বেই মৃতের পরিবারের সদস্য এবং স্থানীয় কিছু মুসল্লিদের উপস্থিতে জানাযা সম্পন্ন করে হরিপুর মাদ্রাসার কবরস্থানে দাফন করেন।

করোনা ভাইরাসের প্রেক্ষিতে পুলিশ সুপারের অনুরোধে সাঁড়া দিয়ে বৃহৎ জনসমাগম এড়িয়ে মাওলানা হুসাইন আহমদ এর জানাযা এবং দাফন সম্পন্ন করায় নিজের দায়িত্ববোধ থেকে পুলিশ সুপার মৃতের স্বজনদের সান্ত্বনা দিতে ছুটে যান মর্মে সূত্রে জানা যায়। এ বিষয়ে জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ শ্যামল বনিক জানান, গন জমায়েত পরিহার করে,সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে স্বল্প পরিসরে আয়োজন করায় এবং মরহুমের পরিবারের সদস্যদের সমবেদনা জানাতে পুলিশ সুপার মহোদয় মরহুমের বাড়িতে যায়।