মধুখালীতে ইউপি চেয়ারম্যানের পারিবরিক হামলায় প্রতিবেশী চারজন আহত

মফিজুর রহমান মুবিন, মধুখালী ফরিদপুর প্রতিনিধি:  ফরিদপুরের মধুখালী উপজেলার কামালদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাবিবুল বাশারের পারিবারিক সদস্যদের হামলায় প্রতিবেশী চারজন আহত হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গিয়েছে। তার মধ্যে আঞ্জুমানারা (৩৮) নামের একজন নারী আহত অবস্থায় মধুখালী হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

বৃষ্টি পানি যাওয়ার তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র উভয় পক্ষের মাঝে তর্কাতর্কি শুরু হলেও পরবর্তীতে হামলার ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ করেছেন প্রতিবেশী হৃদয়ুতুল্লাহ বাবু। তিনি বলেন বাড়ীর উঠানের পানি অপসারণের জন্য সামান্য মাটি করে দিলে চেয়ারম্যানের ছেলে কাজল উপস্থিত হয়ে আমার সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ করে। আমি তাকে ভদ্র ভাবে কথা বলার জন্য বলা মাত্র সে বাড়ীর ভিতর উপস্থিত হয়ে তার মা চেয়ারম্যানের স্ত্রী নাজনীন আক্তার ও ভাইয়ের স্ত্রী জুলেখা বেগমসহ আমাকে চড়থাপ্পর মারতে থাকে।

এমন সময় আমার স্ত্রী আঞ্জুয়ারা বেগম আমাকে রক্ষার জন্য এগিয়ে এলে তারা একত্রিত ভাবে আমার স্ত্রীর উপর হামলা করে। এমন সময় তাদের সাথে চেয়ারম্যানের ভাইয়ের ছেলে কিরণও এলোপাথারী মারধোর করে। বর্তমানে আমার স্ত্রী আহত অবস্থায় মধুখালী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে। সরেজমিনে মধুখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দেখা যায় আঞ্জুমানারা বেগম চিকিৎসাধীন।

ঘটনার বিষয়ে জানতে চাইলে কামালদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাবিবুল বাশার বলেন, আমার ছেলে মাটি কাটতে নিষেধ করার সাথে সাথেই হৃদয়তুল্লাহ বাবু আমার ছেলেকে আঘাত করে। ঘটনার সাথে জড়িতরা আমার নিকটতম প্রতিবেশী হওয়ায় উভয়পক্ষকে নিয়ে সমাধানের চেষ্টা করছি। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে মধুখালী থানার সাব ইন্সপেক্টও তোতা মিয়া জানান একটি লিখিত অভিযোগ পাওয়ায় তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।