ভোলার তজুমদ্দিন কলেজ ছাত্রের আত্মহত্যা, বিচারের দাবীতে মানবন্ধন

ফারহান-উর-রহমান সময়, তজুমদ্দীন ভোলা প্রতিনিধি: ভোলার তজুমদ্দিনে মোবাইল চুরির মিথ্যা অপবাদে দিয়ে মারপিট করলে অপমান সইতে না পেরে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্তহত্যা করেন এক কলেজ ছাত্র। এঘটনার বিচারদাবী করে শম্ভুপুর খাসেরহাট বাজারে মানববন্ধন করেন ছাত্রলীগ ও নিহত ছাত্রের বন্ধু মহল।

সুত্রে জানা যায়, গতকাল মঙ্গলবার ১৩ অক্টোবর উপজেলার শম্ভুপুর ইউনিয়নের কাচিকাটার পোল এলাকার জাহাঙ্গীরের ছেলে শরীফ, কয়ছর আহাম্মদের ছেলে রিপন, মোফাজ্জলের ছেলে কবির মোবাইলে জুয়া খেলেন। এ সময় জুয়াড়ী কবিরের সাথে থাকা মোবাইল হারিয়ে যায়।

পরে সন্দেহজনক ভাবে ফরিদ, রাহাদ, সজিব, টুটুল, হৃদয়, শরীফ, রিপন, শাহীন ও সুরজিৎকে চাউল পড়া খাওয়ান এবং তাকে মারপিট করে। এঘটনায় সুরজিৎ অপমান সইতে না পেরে নিজের ঘরে আড়ার সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন। নিহত সুরজিৎ শম্ভুপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সমাজসেবা সম্পাদক ছিলেন।

এঘটনায় দুস্কৃতিকারীদের বিচারেরদাবীতে শম্ভুপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগ ও বন্ধু মহলের উদ্যোগে খাসের হাট বাজারে মানববন্ধ অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় বক্তৃতা করেন, শম্ভুপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি মো: লোকমান ভূইয়া, সম্পাদক মো: নিজাম উদ্দিন, উপজেলা সেচ্চাসেবক লীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক মো: ছানাউল্যাহ, ছাত্রলীগ নেতা মো: ইব্রাহিম প্রমুখ।