দুই সিটিতে ভোট গ্রহনের জন্য প্রস্তুত ৩৫ হাজার ইভিএম

প্রথমবারের মতো ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন-ইভিএমে ভোটগ্রহণ হবে ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে। আর এর জন্য দুই সিটির আড়াই হাজার ভোট কেন্দ্রের জন্য ৩৫ হাজার ইভিএম প্রস্তুত রেখেছে নির্বাচন কমিশন।

প্রতিটি ভোটকক্ষে একটি ইভিএম থাকবে যেখানে গড়ে ৪শ’ থেকে ৫শ’ ভোটার ভোট দিতে পারবেন বলে জানায় ইভিএম সংশ্লিষ্টরা। সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত সব ভোটারের ভোট নেয়া সম্ভব হবে কিনা সে প্রশ্ন আলোচিত হচ্ছে।

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে কমবেশি ৩৫ হাজার ইভিএম প্রস্তুত রেখেছে নির্বাচন কমিশন। দুই সিটিতে ভোট কেন্দ্রের সংখ্যা দুই হাজার ৪৭০টি। আর ভোট কক্ষ ১৪ হাজার ৪৫০। এরমধ্যে ঢাকা উত্তর সিটিতে ১৩শ ২০ কেন্দ্রের ৭ হাজার ৯শ’ বুথে থাকবে সমান সংখ্যক ইভিএম। দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনে ৬ হাজার ৬শ ৫০টি ইভিএম ব্যবহার হবে। এ ছাড়া দুই সিটিতেই সমান সংখ্যক ইভিএম ব্যাকআপ হিসেবে রাখা হবে। পরীক্ষামূলক বা মক ভোটিং ও প্রশিক্ষণের জন্য আরো ৫ হাজার ইভিএম ব্যবহার হবে।

তবে সংশ্লিষ্টদের দাবি প্রচার-প্রচারণার ও মক ভোটিং সম্পন্ন হলে ভোটারদের আয়ত্তে চলে আসবে ইভিএমে ভোট দেয়ার বিষয়টি।

ইভিএমে ভোট গ্রহণ নিয়ে আছে রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে মতপার্থক্য।