ভৈরবে মাকে রেখে ছেলেকে নিয়ে চলে গেল ট্রেন

জয়নাল আবেদীন রিটন, ভৈরব প্রতিনিধি: ভৈরব ষ্টেশনে মাকে রেখে শিশু ছেলে সিফাতকে নিয়ে ট্রেন চলে যাওয়ার ঘটনায় ভৈরব রেলওয়ে পুলিশের তৎপরতায় দেড় ঘন্টার মধ্যে সিফাত ফিরে পেল তার মাকে। ঘটনাটি ঘটেছে আজ বুধবার বিকেল সাড়ে ৫ টায় ভৈরব রেলস্টেশনে।

পুলিশ জানায়, ভৈরব রেলওয়ে স্টেশনে মাকে রেখে তার শিশু সন্তান সিপাত (৯) কে নিয়ে চলে যায়। ট্রেন চলে যাওয়ায় মায়ের চিৎকারে রেলস্টেশনে লোকজন জড়ো হয়। খবর পেয়ে রেলওয়ে পুলিশ ছুটে আসে কান্নারত সিফাতের মায়ের কাছে। বিষয়টি অবগত হয়ে ভৈরব রেলওয়ে থানার ওসি মো ঃ ফেরদাউস নরসিংদির রেলওয়ে ফাঁড়ির পুলিশকে ঘটনা অবহিত করলে শিশুকে নরসিংদি রেল স্টেশনে ট্রেন থেকে উদ্ধার করে। সিফাত কিশোরগঞ্জের গচিহাটা এলাকার মিজান মিয়ার ছেলে।

সিফাতের মা লিপি বেগম জানান, আমি আমার ছেলে সিফাতকে নিয়ে গচিহাটা রেল স্টেশন থেকে বিকেলে কিশোরগন্জ এক্সপ্রেস ট্রেনে উঠে ঢাকা যাওয়ার উদ্দ্যেশে রাওয়ানা হয়। ট্রেনটি ভৈরব রেলস্টেশনে বিরতি দিয়ে ইন্জিন ঘূরানোর সময় সিপাতকে ট্রেনে রেখে মোবাইলের দোকানে ফ্লাক্সি করতে যায়। এসময় হঠাৎ ট্রেনটি স্টেশন ছেড়ে চলে যায়।
শিশুটির মা রাত পৌনে ৮ টায় তার সন্তানকে আনতে ঢাকাগামী ঈশাখা ট্রেনে রাওয়ানা হয়েছে। ছেলে সিফাতের সাথে কথা বলে নিশ্চিত হয়েছেন সিফাতের মা প্রতিবেদককে জানান।

নরসিংদী ফাঁড়ির এস আই ফিরোজ আহমেদ বলেন, সিফাত আমাদের হেফাজতে রয়েছে এবং তার মার সাথে কথা হয়েছে। ওনি কিছুক্ষনের ,মধ্যেই এখানে এসে পৌছাবে। তার মা এসে পৌছালেই আমরা সিফাতকে তার মায়ের কাছে তুলে দেব।

ভৈরব রেলওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ ( ওসি) ফেরদৌস আহমেদ বিশ্বাস জানান, শিশুটিকে নরসিংদি রেল পুলিশ উদ্ধার করে পুলিশ ফাঁড়িতে হেফাজতে রেখেছে। শিশুটির মা এখন অন্য একটি ট্রেনে করে নরসিংদি রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির উদ্দ্যেশ্যে ভৈরব ষ্টেশন থেকে রওনা দিয়েছে। সিফাতের মা সেখানে পৌছুলেই তার সন্তানকে ফিরে পাবে।