ভৈরবে বিট পুলিশিং সেবা কার্যক্রমে সুফল পেয়ে স্থানীয়দের মাঝে স্বস্তি

জয়নাল আবেদীন রিটন, ভৈরব প্রতিনিধি: ভৈরবে ৭টি ইউনিয়নে ও পৌর শহরের ১২টি ওয়ার্ডে বিট পুলিশিং সেবা কার্যক্রম শুরু হয়েছে । প্রতিটি ইউনিয়নে ১টি করে এবং শহরের ৩টি ওয়াডের জন্য ১টি করে বিট পুলিশিং অফিসের মাধ্যমে জনগণের দোড় গোড়ায় সেবা পৌছে দিতে এ বিট পুলিশিং সেবা কার্যক্রম চালু করেছে ভৈরব থানা পুলিশ।

এরই অংশ হিসেবে আজ রোববার শিমুলকান্দি ইউনিয়নে প্রধান অতিথি হিসেবে বিট পুলিশিং সেবা কার্যক্রম অফিসের উদ্ধোধন করেছেন সহকারি পুলিশ সুপার মোঃ রেজুয়ান দিপু । এ সময় উপস্থিত ছিলেন ভৈরব থানার ওসি মোঃ শাহিন,শিমুলকান্দি ইউনিয়ন বিট পুলিশ অফিসার ভৈরব থানার উপ-পরিদর্শক মোঃ আব্দুস সালাম,সহকারি বিট পুলিশ অফিসার এ এস আই আব্দুল আওয়াল,ইউপি চেয়ারম্যান যোবায়ের আলম দানিছ,ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি আব্দুল আজিজ ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা । এ সময় ভৈরব থানার ওসি মোঃ শাহিন বলেন, বিট পুলিশিং সেবার মাধ্যমে জনগণকে আর থানায় যেতে হবেনা বাড়ীতে বসেই পুলিশিং সেবা পাওয়া যাবে।

যাকে বলে প্রতিটি ইউনিয়নে বা মহল্লায় গড়ে উঠেছে মিনি থানা । এর ফলে সমাজ থেকে চুরি, ছিনতাই.ডাকাতি,সন্ত্রাস, মাদক ব্যবসা, জুয়ার আসর,স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া,বাল্য বিবাহ ও ইভটিজিংসহ যে কোন ধরনের অপরাধ নিমূর্লে বিট পুলিশিংয়ের মাধ্যমে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও এলাকাবাসিদের সহায়তায় নিমূল করা হবে । তাছাড়া এ বিট পুলিশিং প্রতিটি অফিসের জন্য সেবা কার্যক্রম ১ জন উপ-পরিদর্শক থাকবে । তার মাধ্যমে এলাকার যে কোন ধরনের সমস্যা জনগণের সহায়তায় সমাধান করা হবে । তবে বড় ধরনের সমস্যা হলে সেটা থানার মাধ্যমে সমাধান করা হবে।

এ সময় প্রধান অতিথি ভৈরব-কুলিয়ারচর সার্কেলের সহকারি পুলিশ সুপার মোঃ রেজুয়ান দিপু বলেন, সমাজে আইন শৃঙ্থলা উন্নয়নে জনগণ পুলিশকে তথ্য দিয়ে সহায়তা করলে তথ্য দাতার নাম গোপন রাখা হবে । তবে কােরা সাথে শত্রুতার বশবর্তী হয়ে কাউকে হয়রানী করার জন্য ভুল তথ্য দেওয়া যাবেনা । কারন আমরা তথ্য পাওয়ার পর যাচাই করে পদক্ষেপ নিবো । বিট পুলিশিং সেবা চালু হওয়ায় বিভিন্ন এলাকার অপরাধীদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় এনে শাস্তির বিধান নিশ্চিত করায় এলাকার মানুষের মাঝে এক ধরনের স্বস্তি নেমে এসেছে।