ভৈরবে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে অটো চালককে হত্যা,হাত পা ও মুখ বাধা লাশ উদ্ধার

জয়নাল আবেদীন রিটন,ভৈরব প্রতিনিধি: কিশোরগঞ্জের ভৈরবে মধ্যেরচর গ্রামে বাড়ি থেকে মোবাইল ফোনে ডেকে নিয়ে সুজন মিয়া ( ৩৮) নামে অটো চালককে হত্যা করেছে দুর্বত্তরা । এসময় নিহতের হাত পা ও মুখ বাধা অবস্থায় ছিল।

নিহত অটো চালকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত সুজন শিমুলকান্দি ইউনিয়নের কান্দিপাড়া গ্রামের সাদির মিয়ার পুত্র বলে জানা গেছে । আজ রোববার সকালে হাত পা ও মুখ বাধা অবস্থায় মরদেহটি মধ্যেরচর সড়কের পাশে পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয় । খবর পেয়ে ভৈরব থানা পুলিশ,পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেষ্টিগেশনের একটি দল ঘটনাস্থল থেকে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করেছে।

নিহতের স্ত্রী ঝর্ণা বেগম জানান আজ ভোরে মোবাইলফোনে তার স্বামীকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে হাত,পা ও মুখ বেধেঁ হত্যা করে মৃতদেহ সড়কের পাশে ফেলে গেছে । তিনি ও পরিবারের লোকজন আরো অভিযোগ করে জানান গত কোরবানীর ঈদে কোরবানীর মাংস বিতরনকে কেন্দ্র করে কান্দিপাড়া গ্রামে শাহ আলম নামে ১ যুবককে হত্যা করা হয়।

এ ঘটনার জের ধরে প্রতিপক্ষরা তার স্বামীকে ডেকে নিয়ে পরিকল্পিতভাবে খুন করেছে । এ ঘটঁনার সুষ্ঠ বিচার দাবী করেন । এ বিষয়ে ভৈরব-কুলিয়ারচর সার্কেলের সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার মোঃ রেজোয়ান দিপু জানান, ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া কি কারনে এ ঘটনা ঘটেছে তা তদন্ত করা হচ্ছে।