ভৈরবে ঈদের দিনে ১ হাজার দরিদ্র মানুষের মাঝে খাবার বিতরণ করলেন ইউএনও

আবেদনীন রিটন, ভৈরব (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ করোনাভাইরাস রোধে নিম্ন আয়ের মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়ে এখন দিশেহারা। গরীব সুবিধা বঞ্চিত কর্মহীন অসহায়দের মাঝে ১ হাজার প্যাকেট দুপুরে খাবার বিতরণ করা হয়।

আজ সোমবার ঈদুল ফিতরের দিন ভৈরব উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লুবনা ফারজানা ও তাঁর স্বামী পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব মোহাম্মদ শামীম কিবরিয়া’র’ পক্ষ থেকে নিজস্ব অর্থায়নে স্বেচ্ছাসেবী সেবী সংগঠন “আহার ঘর” এর ম্যাধমে শহীদ আইভি রহমান ষ্টেডিয়াম সংলগ্ন বেদে পল্লীতে দুপুরে ‘আহার ঘর’ সংগঠনের সদস্যদের সহযোগিতায় এ খাবার বিতরণ শুরু করা হয়। পরে পৌর এলাকার ১২ টি ওয়ার্ডের হত দরিদ্র ও গরীব সুবিধা বঞ্চিত কর্মহীন অসহায়দের মাঝে ১ হাজার প্যাকেট দুপুরে খাবার প্যাকেট মোরগ পুলাও বিতরণ করা হয়।

আজ ঈদ-উল- ফিতর। কিন্তু নেই কোন আনন্দের ইমেজ। করোনা মহামারীতে অনেক মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েছে। এতে করে অনেকের ঘরে ভাল কিছু রান্না করা হয়নি। তাদের সাথের ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করার জন্যই ছিল আজকের এই আয়োজন। যাদের ঘরে ভাল কিছু রান্না করতে পারেনি সেই সব অসহায় মানুষের মাঝে এই খাবার বিতরণ করা হয়”আহার ঘর” সংগঠনের সদস্যরা নিজ উদ্যোগে এসব খাবার ১২ ওয়ার্ডে পৌছে দেয়। তারা জানায় নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আরো একজন ব্যক্তির সৌজন্যে রাতের জন্য আরো ৩শত প্যাকেট খাবার বিতরণ করবে।

এসময় সংগঠনের সদস্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন আরাফাত ভূইয়া,সুমাইয়া হামিদ দিয়া, সিতরাতুল রসিদ পিয়াল, হৃদয় মিয়া, রবিন খান, শাহারিয়ার, রিফাত, মানিক সহ অনেকে। এছাড়া প্রতি ওয়ার্ডে উক্ত সংগঠনের ডিস্ট্রিবিউশন টিম রয়েছে। টিমের সদস্যগণ সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এগুলো পৌছে দেয়।

ঈদের আনন্দ ছড়িয়ে দিতে এই মহতি উদ্যোগ নিয়েছেন। লুবনা ফারজানা বলেন, বিশ্বব্যাপি মহামারি করোনা ভাইরাসের সংকটময় পরিস্থিতিতে সমাজের নিম্ন আয়ের মানুষজন চরম বিপাকে পড়েছেন। এমন দুর্যোগপূর্ণ পরিস্থিতি চাকরির সুবাদে আমাকে ভৈরবের মানুষের সাথেই ঈদ করতে হচ্ছে। আজকের খাবার বিতরণ ভৈরবের মানুষের সাথে আনন্দ ভাগাভাগি করার ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা মাত্র। এসময় তিনি আরো বলেন করোনা মহামারীতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে সকলকে ঘরে থাকার আহবান জানাই তিনি।

পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব মোহাম্মদ শামীম কিবরিয়া বলেন, চাকরীর সুবাদে অনেক সময়ই নিজ বাড়িতে ঈদ করা হয় না। আজ ভৈরবে ঈদ পালন করছি। আমার নিকট মনে হলো আজকের এই ঈদের করোনা মহামারীতে অনেক মানুষই রয়েছেন যারা ভাল কিছু হয়ত রান্না করতে পারেনি। সেজন্যই আমাদের আজকের এই ক্ষুদ্র চেষ্টা। আমি আহবান করব আপনারা যারা সমাজের বিত্তবান মানুষ রয়েছেন, যার যার অবস্থান থেকে আপনারাও সমাজের গরীব, অসহায় ও হতদরিদ্রের পাশে দাঁড়াবেন।