ভাড়াটিয়াকে নির্যাতনের অভিযোগ

বশিরুল ইসলাম, কুমিল্লা উত্তর প্রতিনিধি: ৩শ টাকার জন্য ভাড়াটিয়াকে নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গিয়েছে। নির্যাতিত ঐ ব্যক্তি কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলাার আড়াইওরা পশ্চিমপাড়া কাজী বাড়ীর মুদি দোকানদার মো: হারুন মিয়ার ভাড়াটিয়া। দুই হাজার টাকা মাসিক ভাড়া ৩শ টাকা কম দেওয়ায় এই ঘটনার সূত্রপাত বলে জানিয়েছে ভাড়াটিয়া শরীফ।

আজ ২২ এপ্রিল কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরী বিভাগের সামনে চিকিৎসা নিতে এসে বিষয়টি নিশ্চিত করেন নির্যাতিত মো: শরীফ (২৬) ও তার স্ত্রী।

জানা যায়, গত মাসের ভাড়া দেওয়ার সময় ৩শ টাকা কম দেওয়ায় কয়েকদিন ধরে তাদেরকে হুমকি ধমকি সহ অকথ্য ভাষায় গালামন্দ করে আসছে। এরই প্রেক্ষিতে আজ সকাল ৬টার সময় তাদেরকে মেরে আহত করে ঘর থেকে বের করে দেয়। এ সময় ভাড়াটিয়া শরীফের স্ত্রী কাপড় ও অন্যান্য কিছু আনতে বাসার ভেতরে গেলে সেখানে তাকে মেরে আহত করে। তার তলপেটে ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে মেরে ফুলা জখম করে।

বাড়ীর মালিক হারুন মিয়া জানান, সকাল ৬টার সময় আমি ঘুমে ছিলাম। মহিলারা টিউবওয়েলে বালতি ভাঙ্গার ঘটনাকে কেন্দ্র করে ঝগড়ার করলে সেখানে গিয়ে জানতে পারি আমার স্ত্রী ভাড়াটিয়ার স্ত্রীকে মেরেছে। তাই আমি আমার স্ত্রীকেও আমি শাসন করেছি। ভাড়াটিয়া ছেলেটি নেশাখোর। তাকে আমার বাসা ছেড়ে দিতে বলেছি।

পুলিশের উপ পরিদর্শক শাওন সত্যতা স্বীকার করে জানান, আমরা খবর পেয়ে ঘটনাসথলে এসে ঘটনাটি বিস্তারিত জেনেছি। নির্যাতিত ভাড়াটিয়া এখন সেই বাসায় থাকবে। আর কোন সমস্যা হবে না। ভোগÍভোগীরা অভিযোগ করলে আমরা অভিযোগ নেব। তবে ঘটনাটির সূত্রপাত হয়েছে বালতি ভাঙ্গার ঘটনাকে কেন্দ্র করে।