ভাস্কর্য নিয়ে বিএনপির উপর পরিকল্পিতভাবে মামলা করা হয়েছে: ফখরুল

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ভাস্কর্য নিয়ে পরিকল্পিতভাবে মামলা করা হয়েছে। বিরোধী দলের নেতাদের সবসময় মামলার মধ্যে রাখাই আওয়ামী লীগের কাজ।

বুধবার (০৯ নভেম্বর) বিকেলে ঠাকুরগাঁওয়ের নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের কাছে এমন অভিযোগ করেন তিনি। এ সময় জেলা বিএনপির শীর্ষ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আওয়ামী লীগ যখন গণতন্ত্রকে ভয় পায়, অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচন দিতে ভয় পায় তখন তারা মামলা দিয়ে ক্ষমতায় টিকে থাকতে চায়। তাদের কাজই হচ্ছে গ্রাম্য মোড়লের মতো সারাক্ষণ মামলা দেওয়া। তারা পুরোপুরি রাজনৈতিক ফায়দা লুটতে চায়।’

এ সময় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আওয়ামী লীগ নেতারা বর্ণচোরা রাজনীতি করেন। আজ দেশে তারাই অনিশ্চয়তার পরিবেশ সৃষ্টি করেছে। গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার কথা বলে এখন তারা বর্ণচোরা রাজনীতি করেছেন। আজও বর্ণচোরায় পরিণত হয়েছেন।’

বুধবার (৯ ডিসেম্বর) সকালে সরকারি বাসভবনে ব্রিফিংয়ে সেতুমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, ক্ষমতার মোহে অন্ধ হয়ে বিএনপি ধর্মকে ব্যবহার করে রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলের চেষ্টা আগেও করেছে এখনও করছে। এ ছাড়া ভাস্কর্য ইস্যুতে বিএনপির বর্ণচোরা রাজনীতি জাতির কাছে এখন স্পষ্ট হয়ে গেছে।

এর আগে ভাস্কর্য বিরোধিতায় হুকুমের অভিযোগ এনে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান এবং মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের বিরুদ্ধে মানহানি মামলার আবেদন করা হয়েছে। আর ভাস্কর্যবিরোধী বক্তব্য দেওয়ায় একই মামলায় হেফাজত ইসলামের ভারপ্রাপ্ত আমির জুনাইদ বাবুনগরী, খেলাফত মজলিসের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মুহাম্মদ মামুনুল হক ও ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলনের সিনিয়র নায়েবে আমির সৈয়দ ফয়জুল করীমকেও আসামি করা হয়েছে।

সকালে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম সত্যব্রত শিকদারের আদালতে এ মামলার আবেদন করেন জননেত্রী পরিষদের সভাপতি এবি সিদ্দিকী। মামলার শুনানি শেষে আদেশ অপেক্ষমাণ রেখেছেন আদালত।