ভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা জানাতে প্রস্তুত কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার

অপেক্ষা আর অল্প সময়ের। শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে প্রস্তুত গোটা জাতি। প্রস্তুতি শেষ হয়েছে শহীদ মিনারেও। এখন চলছে শেষ মুহুর্তের টুকিটাকি কাজ। নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে দেয়া হয়েছে পুরো প্রাঙ্গণ।

বাহান্নতে এই বাংলার জন্য ঝড়েছে তাজা প্রাণ। বাঙ্গালী মনে থেমে থেকে বাজে ভাইয়ের শোকের গান।

২১শে ফেব্রুয়ারি বাঙ্গালীর ছেড়ে বিশ্বের হয়েছে বহু বছর। বাংলা মায়ের সাহসী সেই বীর সন্তানদের প্রতি এখন শ্রদ্ধা জানায় পুরো ব্রহ্মাণ্ড। তাই শেষ মুহুর্তের তুলির আচড় শিল্পীদের।

শিল্পীরা বলেন, একুশে ফেব্রুয়ারিতেই এই কাজ করি। কিন্তু ভাষা শহীদদের জন্য সারা বছর ধরে যদি কিছু করতে পারতাম তাহলে অনেক ভাল লাগত।

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আসবেন রাষ্ট্রপ্রধান, সরকার প্রধানসহ সর্বস্তরের মানুষ। ফুলে ফুলে ছেয়ে যাবে স্মৃতির মিনার। আয়োজনে কোন কমতি থাকার অবকাশই নেই। শেষ মুহুর্তে ব্যস্ত সবাই।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর বলেন, সর্বস্তরের সবাইকে আমরা সাধরে গ্রহণ করব। রাত ১২টা ১ মিনিটে যে রাষ্ট্রীয় আনুষ্ঠানিকতা থাকে, সে চিন্তা করে আমরা আমাদের আয়োজন সাজিয়েছি।

শুক্রবার সারাদিন শহীদ মিনার মুখরিত হবে লাখো মানুষের জমায়েতে। নিরাপত্তার জন্য থাকছে নিশ্ছিদ্র ব্যবস্থা। সিসিটিভি থেকে, ডগ স্কোয়াড সব রয়েছে প্রস্তুত।

র‍্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ বলেন, ‘আজ (বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা থেকে মুল নিরাপত্তা ব্যবস্থা বলবৎ করবো। যা আগামীকাল দুপুর পর্যন্ত থাকবে।’