বড় ভাইকে হত্যা করে লাশ মাটিচাপা

নরসিংদীর মাধবদীতে নিখোঁজের ৭ দিন পর সোহাগ মিয়া (২২) নামে একজনের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সন্দেহবশত স্থানীয়রা ৯৯৯ এ ফোন দিলে মঙ্গলবার (৯ মার্চ) দুপুর ১২ টার দিকে মাধবদী থানার দাইরের পাড় গ্রাম থেকে মাটি খুঁড়ে লাশটি উদ্ধার করা হয়। নিহত সোহাগ মাধবদী থানার দাইরের পাড় গ্রামের সানাউল্লাহ মিয়ার ছেলে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করা হয়েছে।

এর আগে পারিবারিক কলহের জেরে ছোট ভাই জহিরুল ক্রিকেট ব্যাট দিয়ে সোহাগের মাথায় আঘাত করে তাকে হত্যা করে লাশ মাটির নীচে পুঁতে রাখে।

জানা যায়, ২ মার্চ রাতে সোহাগ নেশাজাতীয় দ্রব্য পান করে বাড়িতে ফিরে। এসময় সোহাগ রাগারাগি করে তার মাকে গালিগালাজ ও মারধর করে। এতে তার বাবা বাধা দেয়ার চেষ্টা করলে তাকেও মারধর করে। পরে ছোট ভাইয়ের স্ত্রীকে শীলতাহানির চেষ্টা করে নেশাগ্রস্ত সোহাগ।

এসময় ছোট ভাই জহিরুল ক্ষিপ্ত হয়ে ক্রিকেট ব্যাট দিয়ে সোহাগের মাথায় আঘাত করলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। পরে সোহাগের লাশ বাড়ির পাশের একটি পুকুর পাড়ে মাটিচাপা দিয়ে লাশ গুম করে রাখা হয়। এদিকে কয়েকদিন ধরে সোহাগকে দেখতে না পেয়ে সন্দেহ হওয়ায় স্থানীয়রা ৯৯৯ ফোন করে ঘটনাটি অবহিত করেন।

পরে মাধবদী থানা পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করে। এসময় পুলিশ নিহতের দুই ছোট ভাইয়ের স্ত্রীদের আটক করলে তাদের দেয়া তথ্যমতে বাড়ির পাশের একটি পুকুরের পাড় থেকে ভেকু মেশিন দিয়ে মাটি খুঁড়ে সোহাগের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।