ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আইসোলেশন থেকে সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৪ জন

বাবুল সিকদার, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রতিনিধিঃ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সনাক্ত ৩৯ জনের মধ্যে গত ২৪ ঘন্টায় আরো সাতজন আইসোলেশন থেকে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে ছাড়পত্র নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন। এনিয়ে মোট ১৪ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা সিভিল সার্জন ডা. মো. একরাম উল্লাহ। এদের মধ্যে বর্তমানে জেলার আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন মোট ২১ জন।

সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা যায়, ১০ এপ্রিল জেলার নবীনগরে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী সনাক্ত হয়। এরপরে পর্যায়ক্রমে ৩০ এপ্রিল সকাল পর্যন্ত জেলায় মোট ৩৯ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী সনাক্ত হয়। এর মধ্যে জেলার সদর উপজেলায় একজন, আখাউড়ায় ১৪ জন, বিজয়নগরে নয়জন, নবীনগরে দুইজন, নাসিরনগরে সাতজন, বাঞ্ছারামপুরে পাঁচজন ও সরাইলে একজন করোনায় আক্রান্ত হয়। এদের মধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন দুইজন। কসবা ও আশুগঞ্জ উপজেলায় এখনো কোন করোনা আক্রান্ত রোগী সনাক্ত হয়নি।

আক্রান্তদের মধ্যে বিভিন্ন সময়ে সাতজন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। এর মধ্যে গত ২৪ ঘন্টায় আরো ৭ জন সুস্থ হয়ে আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন। বাকিদের মধ্যে জেলায় আইসোলেশনে ২১ জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এছাড়া জেলার বাঞ্ছারামপুরে একজন ও ঢাকায় একজন আইসোলেশনে রয়েছেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সিভিল সার্জন ডা. মো. একরাম উল্লাহ জানান, জেলার বিভিন্ন উপজেলা থেকে মোট এক হাজার ৩’শ বিশজনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। যার মধ্যে ৯’শ ৭৯ জনের নমুনার ফলাফল পাওয়া গেছে। জেলায় মোট করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ৩৯ জন। এদের মধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন দুইজন, ঢাকায় ও বাঞ্ছারামপুরে চিকিৎসাধীন রয়েছেন দুইজন। ইতোমধ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র নিয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন ১৪ জন । ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ২১ জন। তাদের অবস্থাও আগের চেয়ে ভাল।

এছাড়াও জেলায় হোম কোয়োরেন্টিনে ২৬ হাজার ২’শ ৭২ জন ও প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে ৭৯ জন রয়েছেন বলেও জানান তিনি।