বোয়ালমারীতে জমি নিয়ে মারামারি আহত ১৫

 মোঃ ইলিয়াস মোল্যা, বোয়ালমারী,আলফাডাঙ্গা প্রতিনিধি: ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার পরমেশ্বদী গ্রামে জমিজমা বিরোধকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে মারামারি সংঘঠিত হয়েছে। মারামারিতে দুই পক্ষের আহত হয়েছে কমপক্ষে ১৫ জন।

খবর পেয়ে ডহরনগর তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। আহতদের মধ্যে সোহাগ মিয়া (৪০), রাজিয়া বেগম (২৬), ওহিদ মিয়া (৩৪), মাসুদ মিয়া (৪২), মেহেদী হাসান (২৫), সামাদ মিয়াকে (২৬) বোয়ালমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। বাকিদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়। এলাকা সূত্রে জানা যায়,

পরমেশ্বদী গ্রামের বাসিন্দা রিপন মিয়া ও রাসেল কাজীর মধ্যে জমিজমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। বিরোধকে কেন্দ্র করে শুক্রবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) জুম্মার নামাজ শেষে মসজিদ প্রাঙ্গনে মারামারি সংঘঠিত হয়। রাসেল কাজী বলেন, শুক্রবারে জুম্মার নামাজ পড়ে মসজিদ থেকে বের হলে রিপন মিয়া দেশীয় অস্ত্র সজ্জীত হয়ে তার লোকজন নিয়ে আমাকে ঘিরে বলে জমি কখন লেখে দিবি।

আমাকে বিভিন্ন ভয়ভীতি দেখাতে থাকে। এ সময় আমার লোকজন খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসলে দুই পক্ষের মধ্যে মারামারি বেধে যায়। সময় উভয় পক্ষের লোকজনই আহত হয়েছে। রিপন মিয়া বলেন, পাশের গ্রাম খারদিয়ায় বিয়ে দাওয়াত ছিল শুক্রবার। দাওয়াত উপলক্ষে আমার ভাই ঢাকা থেকে বাড়িতে এসে মসজিদে নামাজ পড়তে যায়।

নামাজ শেষে মসজিদ থেকে বের হলে রাসেল কাজী তার লোকজন নিয়ে হামলা চালায়। এতে আমাদের অনেকে আহত হয়েছে। ডহরনগর তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মো. আ. গফফার বলেন, দুই পক্ষের মধ্যে মারামারি হয়েছে। এতে আহত হয়েছে কয়েকজন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনা হয়। এখন পর্যন্ত কোন পক্ষই লিখিত অভিযোগ দেয়নি।