বোয়ালমারীতে ঘরবাড়িতে হামলা ভাংচুর লুটপাট আহত ১৫

মোঃ ইলিয়াস মোল্যা, বোয়ালমারী+আলফাডাঙ্গা প্রতিনিধি: ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার পরমেশ্বরদী ইউনিয়নে পরমেশ্বরদী গ্রামে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে এক পক্ষের অতর্কিত হামলায় বাড়ি ঘর ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে।

হামলায় আহত হয়েছে ১৫জন। এ ঘটনায় পুলিশ উভয় পক্ষের ১০জনকে আটক করে। উভয় পক্ষই থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। অভিযোগ ও সরেজমিনে ঘুরে জানা যায়, পরমেশ্বরদী গ্রামের কুদ্দুস আকনের সাথে মান্নান শেখদের আধিপত্য নিয়ে দ্বন্দ্ব চলে আসছে।

এ ঘটনার জের ধরে বুধবার (১২.০৮.২০) বিকেলে মান্নান শেখ (৬০), দেলোয়ার শেখ (৫০), আনোয়ার শেখ (৫৫), সমুন শেখসহ (২৫) ২৫/৩০ জনের সন্ত্রাসী দল দেশীয় অস্ত্র নিয়ে কুদ্দুস আকনের পক্ষের সালাম সিকদার, নজরুল ফকির, ইকরাম আকন, আজিজুর মুন্সি, জব্বার মুন্সির বাড়িতে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর ও লুটপাট করে।

এ সময় হামলায় আহত সালাম সিকদার (৮০), জব্বার মুন্সি, ইকরাম আকন, আফজাল সিকদার, সাদ্দাম মোল্যা, বিল্লাল আকন, সোহরাব আকনকে বোয়ালমারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্রো ভর্তি হয়। পরে গুরুতর আহত সালাম সিকদারকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠাপনো হয়। অন্যান্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়।

এ ঘটনায় পুলিশ মান্নানের ছেলে মাদক, ধর্ষণসহ একাধিক মামলার আসামি সুমন শেখসহ (২৫) ১০জন আটক করে পুলিশ। মো. কুদ্দুস আকন অভিযোগ করে বলেন, ভাংচুর করিয়া আনুমানিক দুই লক্ষ টাকার ক্ষতি সাধন করে এবং তিন লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এ সময় একটি গরু নিয়ে যায় এবং দুই গাভীকে মারপিঠ ও কুপিয়ে জখম করে।

পরে পুলিশের সহায়তায় গরুটি ফেরত দেয়। বোয়ালমারী থানা অফিসার ইনচার্জ মো. আমিনুর রহমান দুই পক্ষের অভিযোগ পাওয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করে এবং ঘটনাস্থল থেকে ১০জন আটক করায়। মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।