বিশ্বব্যাংকের সহজে ব্যবসার সূচকে বাংলাদেশের অগ্রগতি

বিশ্বব্যাংকের সহজে ব্যবসা করার সূচকের অগ্রগতি বা ব্যবসায় পরিবেশের উন্নয়নে সরকারের সঙ্গে কাজ করার জন্য ব্যবসায়ীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (বিডা) নির্বাহী চেয়ারম্যান মো. সিরাজুল ইসলাম।

সোমবার (১৭ মে) ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস ফোরাম অব বাংলাদেশ (আইবিএফবি) ও বেসরকারি গবেষণা সংস্থা বাংলাদেশ এন্টারপ্রাইজ ইনস্টিটিউট (বিইআই) যৌথভাবে আয়োজিত ‘ইজ অব ডয়িং বিজনেস: স্ট্যাটাস অব ২০২১’ শীর্ষক ওয়েবিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, সহজে ব্যবসা করার সূচকের উন্নয়নের জন্য বিডার চলমান সংস্কার কর্মসূচি বাস্তবায়নে

বেসরকারি খাতকে সক্রিয়ভাবে যুক্ত হতে হবে। ব্যবসায়ীদের সহযোগিতা ছাড়া সংস্কার কর্মসূচি বাস্তবায়ন সম্ভব নয়।

আইবিএফবির সভাপতি হুমায়ুন রশিদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চল

কর্তৃপক্ষের (বেপজা) নির্বাহী চেয়ারম্যান মো. নজরুল ইসলাম

চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার অ্যাডমিরাল এম শাহজাহান, সাবেক সেনাপ্রধান লেফটেন্যান্ট জেনারেল এম হারুন-অর-রশিদ

রাষ্ট্রদূত এম হুমায়ুন কবির, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান ড. মুহাম্মদ আব্দুল মজিদ,

আইবিএফবির সহসভাপতি এম এস সিদ্দিকী বক্তব্য রাখেন।

ওয়েবিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বিডার পরিচালক (ওয়ান স্টপ সার্ভিস অ্যান্ড রেগুলেটরি রিফর্ম) জীবন কৃঞ্চ সাহা রায়।

সিরাজুল ইসলাম বলেন, ব্যবসায়ীদের সেবা প্রদানের ক্ষেত্রে সরকারের উচ্চ পর্যায় থেকে যেভাবে ইতিবাচক মনোভাব দেখানো হয়

মাঠ পর্যায়ে এখনও সেই মনোভাব তৈরি হয়নি। সেই জায়গায় আমাদের উন্নতি করতে হবে।

তিনি বলেন, ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করতে পারলে এই সমস্যার অনেকটাই দূর হয়ে যাবে।

তখন প্রত্যেকটি সংস্থার উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তারা সেবা প্রদান কার্যক্রম সার্বক্ষণিক তদারকি করতে পারবেন।

তিনি জানান, বিডা বর্তমানে ওয়ান স্টপ সার্ভিস (ওএসএস) থেকে ৪৭টি সেবা প্রদান করছে। আমরা এখানে মোট ১৫০টি সেবা যুক্ত করব।

বিডা চেয়ারম্যান মনে করেন বিশ্বব্যাংক সহজে ব্যবসা করার সূচক প্রস্তুত করার সময় ঢাকার বাইরের প্রতিষ্ঠানগুলো গণনার বাইরে থেকে যাচ্ছে।

কিংবা যেসব ব্যবসায়ীদের মতামত নেয়া হচ্ছে, তারা অনেকেই বিডার সংস্কার কর্মসূচি সম্পর্কে সম্পূর্ণ ওয়াকিবহাল থাকেন না।

ফলে ব্যবসায় পরিবেশের পুরো চিত্র সেখানে আসছে না। পুরো চিত্র পাওয়া গেলে সূচকের অবস্থানের হয়ত আরো অগ্রগতি হত।

তিনি বলেন, যেসব অনুমিতির ওপর ভিত্তি করে বিশ্বব্যাংক সহজে ব্যবসা করার সূচক প্রস্তুত করে আমরা গত দুই বছর ধরে সেসব জায়গায় কাজ করছি।

আশা করি দ্রুত আমরা উন্নতি করতে পারবো। বর্তমানে বিশ্বব্যাংকের সহজে ব্যবসা করার সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান ১৬৮তম।

বেপজার নির্বাহী চেয়ারম্যান মো. নজরুল ইসলাম জানান, করোনাভাইরাস অতিমারির মধ্যেও

ইপিজেডগুলোতে ২০২১ সালের জানুয়ারি থেকে এপ্রিল সময়ে গত বছরের তুলনায় অনেক বেশি বিনিয়োগ হয়েছে।

তিনি মনে করেন, ইপিজেডে ব্যবসায়ীরা সেবাসমূহ অনেক সহজে পেয়ে থাকেন বলে এখানে প্রতিনিয়ত বিনিয়োগ বেড়ে চলেছে।

চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার অ্যাডমিরাল এম শাহজাহান বলেন,

গত কয়েক বছরে পণ্য খালাস থেকে শুরু করে বন্দরের সকল কার্যক্রম জোরদার হওয়ার পাশাপাশি সেখানে স্বচ্ছতা তৈরি হয়েছে।

ওয়েবিনারে অন্য বক্তারা ব্যবসায় পরিবেশের উন্নয়নে আমলাতান্ত্রিক জটিলতা নিরসন ও মাঠ পর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তাদের সেবা প্রদানের ক্ষেত্রে আরো বেশি আন্তরিক হওয়ার আহ্বান জানান।