বাহাদুরপুর কালিতলা বাজারের ঈদের আগে জমজমাট পশু হাট

মোঃ শাহিন রেজা, রাজবাড়ী জেলা প্রতিনিধিঃ ঈদের আগে জমজমাট রাজবাড়ী পাংশা উপজেলার বাহাদুরপুর ইউনিয়নের সেনগ্রাম কালিতলা বাজারের পশু হাট। করোনা ভাইরাসের কারণে দীর্ঘদিন ধরে বন্ধু ছিল পাংশা সেনগ্রাম কালিতলা বাজারের পশু হাট টি।

কিন্তু কোরবানির ঈদ উপলক্ষে সীমিত আকারে সরকারি নির্দেশনা মেনে শনিবার ( ১৮জুলাই )আবারও চালু হয়েছে সেনগ্রাম কালিতলা বাজারে পশু হাট। দীর্ঘদিন পর চালু হওয়ার কারণে প্রথম দিনে ক্রেতা বিক্রেতার উপস্থিতি কম দেখা গিয়েছে, হাট পরিচালক মোঃ ইউনুছ আলী মেম্বার বলেন, পাংশা উপজেলার মধ্যে বেশ কিছু হাট আমি পরিচালনা করি। করোনার কারণে আপনারা জানেন দীর্ঘদিন ধরে এসব পশুহাট বন্ধ রয়েছে।

কিন্তু কোরবানি ঈদ উপলক্ষে সরকার থেকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে সীমিত আকারে সরকারি নির্দেশনা মেনে কোরবানির পশু ক্রয় বিক্রয় করা যাবে। আর সরকারি নির্দেশনা মেনেই আমরা আবারো নতুন করে আজ থেকে পশুহাট চালু করেছি। এবং বাহাদুরপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ এর যুগ্ন সাধারন সম্পাদক মোঃ নজরুল ইসলাম বলেন, আমাদের সেনগ্রাম কালিতলা পশু হাট টি অনেক পুরাতন একটি পশুহাট। এই পশু হাটটিতে অনেক দূর-দূরান্ত থেকে পশু ক্রয় বিক্রয়ের জন্য মানুষ আসে। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে করোনার কারণে বন্ধু রয়েছিল পশু হাট টি, কোরবানির পশু ক্রয় বিক্রয়ের জন্য আজ থেকে নতুন করে সরকারি নির্দেশনা মেনে আবারো চালু হয়েছে।

প্রথম দিনে ক্রেতা-বিক্রেতার উপস্থিতি কম থাকলেও আশা করি আগামী হাটে ক্রেতা-বিক্রেতার উপস্থিতি বেশি হবে। এদিকে পশুর দাম কম থাকাতে ক্রেতার মুখে হাসি থাকলেও ক্রেতার মুখে হাসি নেই। বিক্রেতা মোঃ শামসুল আলম বলেন, আমার গরু আজ থেকে পাঁচ মাস আগে দাম হয়েছিল ১ লক্ষ টাকার উপরে আর এখন আমার গরুর দাম হচ্ছে ৯০ হাজার টাকা,এখন আমি কি করব ভেবে পাচ্ছি না। ক্রেতা মোহাম্মদ নাছির বলেন, গত বছরের থেকে এই বছর গরুর দাম একটু কম। কুরবানীর দেওয়ার জন্য যারা গরু কিনবে তাদের জন্য দাম কম হওয়াতে ভালো হয়েছে।