বার কাউন্সিলের ২০১৭ ও ২০ সালের প্রিলিমিনারি পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের আইনজীবী হিসেবে তালিকাভুক্তির দাবীতে বাগেরহাটে মানববন্ধন

 মাহফুজুর রহমান বাপ্পী, বাগেরহাট জেলা প্রতিনিধি: বার কাউন্সিলের ২০১৭ ও ২০ সালের প্রিলিমিনারি (এমসিকিউ) পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের আইনজীবী হিসেবে তালিকাভুক্ত করার দাবিতে মানববন্ধন করেছে বাগেরহাট শিক্ষানবিস সমন্বয় পরিষদ। মঙ্গলবার বেলা এগারোটা থেকে বারোটা পর্যন্ত বাগেরহাট প্রেসক্লাবের সামনে শিক্ষানবিস সমন্বয় পরিষদের ব্যানারে পরীক্ষায় উত্তীর্ণরা ওই মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। সারাদেশে একযোগে শিক্ষানবিস সমন্বয় পরিষদের ব্যানারে এই মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়।
বক্তারা বলেন, দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও আইন কলেজ থেকে পাশ করে বার কাউন্সিলের আইনজীবী হিসেবে তালিকাভুক্ত হতে পরীক্ষা দিতে হয়। ২০১৭ সালের পর একটানা তিন বছর পরীক্ষা হয়নি। সর্বশেষ চলতি বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত এমসিকিউ পরীক্ষার ফল প্রকাশের তিন মাসের মধ্যে লিখিত পরীক্ষা হওয়ার বিধান থাকলেও মহামারি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার পর তা আর হয়নি। আমরা পঁাচ থেকে দশ বছর আগে দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও আইন কলেজ থেকে পাশ করি। ৯০ হাজার পরীক্ষার্থীর মধ্যে মাত্র ১২ হাজার ৮৭৮ জন বার কাউন্সিলের আইনজীবী হিসেবে তালিকাভুক্ত হতে এমসিকিউ পরীক্ষায় অংশ নিয়ে উর্ত্তীর্ণ হয়ে বসে আছি।
বছরের পর বছর ধরে বেকার বসে থেকে আমরা মানবেতর জীবনযাপন করছি। গত ৯ জুন আমরা শিক্ষানবিস সমন্বয় পরিষদের ব্যানারে জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্বারকলিপি দেই। আমাদের সমস্যা সমাধানে অবিলম্বে পদক্ষেপ গ্রহণ করার দাবি জানান শিক্ষানবিস সমন্বয় পরিষদের নেতারা। মানববন্ধনে বক্তব্য দেন শিক্ষানবিস সমন্বয় পরিষদের বাগেরহাটের সমন্বয়কারি মো. নিজাম উদ্দিন, লিটন সরকার, গিয়াস মল্লিক ও শিরিন সুলতানা।