বার্সেলোনার প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছেন জাভি

আগের কোচ আর্নেস্তো ভালভার্দের জায়গায় নিজেদের সাবেক মিডফিল্ডার জাভিকে চেয়েছিল বার্সেলোনা। কিন্তু জাভি নিজেই এত তাড়াতাড়ি বার্সার মতো দলের কোচ হতে চাননি। খোদ জাভিই জানিয়েছেন এটা

আর্নেস্তো ভালভার্দেকে হটিয়ে দলের নতুন ম্যানেজার হিসেবে কিকে সেতিয়েনকে দায়িত্ব দিয়েছে বার্সেলোনা। কিন্তু সেতিয়েনের আগে বার্সেলোনার কোচ হওয়ার প্রস্তাবটা জাভি হার্নান্দেজের কাছে এসেছিল, গত কয়েক সপ্তাহ ধরে চলতে থাকা এই গুঞ্জনটার সত্যতা স্বীকার করলেন বার্সার সাবেক এই মিডফিল্ডার নিজেই।

জাভি এখন আছেন কাতারি ক্লাব আল সাদের দায়িত্বে। গত বছর সুপার কাপও জিতিয়েছেন এই ক্লাবকে। বার্সেলোনা সব সময় কোচ হিসেবে এমন কাউকে নিয়োগ দেয়, যাঁর সঙ্গে ক্লাবটার আগে থেকেই সম্পর্ক আছে। বা যিনি বার্সেলোনার খেলার ধরনটা বোঝেন। ইয়োহান ক্রুইফ, কার্লোস রেক্সাস, লুই ফন গল, ফ্রাঙ্ক রাইকার্ড, পেপ রাইকার্ড, টিটো ভিয়ানোভা, লুইস এনরিকে, আর্নেস্তো ভালভার্দে – মোটামুটি নিজেদের ইতিহাসের অধিকাংশ ম্যানেজারকেই এভাবে নিয়োগ দিয়েছে বার্সেলোনা। সে দর্শনকে মাথায় রেখেই জাভির কাছে কোচ হওয়ার প্রস্তাব নিয়ে গিয়েছিল ক্লাবটি।

কিন্তু জাভি তাদের ফিরিয়ে দিয়েছেন। কেন ফিরিয়ে দিয়েছেন? জানালেন তিনি নিজেই, ‘হ্যাঁ, আমি বার্সেলোনার কাছ থেকে একটা প্রস্তাব পেয়েছিলাম। এরিক আবিদাল (বার্সার স্পোর্টিং ডিরেক্টর) ও অস্কার গারু (বার্সার প্রধান নির্বাহী) দোহায় এসে আমার সঙ্গে দেখা করেছিলেন। কিন্তু আমি সে প্রস্তাব গ্রহণ করিনি। আমার মনে হয়, এখনই বার্সার মতো দলের কোচের দায়িত্ব নিলে সেটা আমার জন্য অনেক আগেভাগে হয়ে যেত। তবে ভবিষ্যতে অবশ্যই বার্সেলোনার কোচ হতে চাই আমি, সে স্বপ্ন আমার এখনো আছে।’

শুধু জাভিই নয়, জানা গেছে, নেদারল্যান্ডসের বর্তমান কোচ রোনাল্ড কোম্যান, টটেনহামের সাবেক কোচ মরিসিও পচেত্তিনো, রিভার প্লেটের বর্তমান কোচ মার্সেলো গ্যালার্দো – সবাইকে বার্সেলোনা কোচ হওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিল। কিন্তু ভিন্ন ভিন্ন কারণ দেখিয়ে কেউই স্প্যানিশ চ্যাম্পিয়নদের দায়িত্ব নিতে রাজি হননি। ফলে কপাল খুলে যায় বেকার থাকা সাবেক রিয়াল বেতিস কোচ কিকে সেতিয়েনের।

নতুন কোচ সেতিয়েনের ওপর যথেষ্ট আস্থা আছে জাভি, তাঁর কথা শুনেই বোঝা যায়, ‘বার্সেলোনার নতুন কোচকে আমার পছন্দ হয়েছে, সে যেভাবে দলকে ফুটবল খেলায় সেটা আমার বেশ পছন্দ। আশা করি তাঁর অধীনে সাফল্য পাবে দল।’