বান্দরবা‌নের রোয়াংছ‌ড়ি‌তে আগুনে ক্ষতিগ্রস্থদের পাশে সেনাবাহিনী

রানা মারমা,বান্দরবান প্রতিনিধি: শ‌নিবার (২৭জুন) মধ্য রাতের দিকে বান্দরবান পার্বত্য জেলার রোয়াংছড়ি বাজারে আগুনের সুত্রপাত ঘটে। তাৎক্ষণিক ছুটে আসে রোয়াংছড়ি সেনা ক্যাম্পের সেনা সদস্যগণ। এসময় জলন্ত আগুনের মাঝে আগুন নেভানো এবং জিনিসপত্র অক্ষত রাখার চেষ্টা করেছে সেনাবাহিনী।

তারা নিজের জীবন বাজী রেখে ছোট ছোট দলে ভাগ হয়ে কেউ আগুন নিভানোর কাজে কেউ দোকান এবং বাড়ীতে থাকা জিনিসপত্র নিরাপদ রাখতে কাজ করেন। যেখানে আগুন দেখে সবাই দুরে চলে যায় এমন সময় সেনাবাহিনীর সামনে এগিয়ে যাওয়ার দৃশ্য থেকে স্থানীয়রাও তাদের সাথে যোগ দিয়ে আগুন নেভানোর কাজ করতে থাকে। আর এই অক্লান্ত পরিশ্রমটি চলে সারা রাত। স্থানীয়‌দের সূ‌ত্রে জানা গে‌ছে, মধ্য রাতে বাজারে আগু‌নের সূত্রপাত হ‌য়ে‌ছে।

প‌রে আগুন দ্রুত চার‌দি‌কে ছ‌ড়ি‌য়ে প‌ড়ে। এই অগ্নিকান্ডে ১৭ টি বাড়ী, ০৮ টি মুদিখানার দোকানসহ বাড়ী, ২৫ টি মুদিখানার দোকান, ০৪ টি কাপড়ের দোকান, ০৪ টি টিভি ইলেকট্রিক মেরামতের দোকান, ০৩ টি ফার্মেসীর দোকান, ০১ টি ফার্নিচার ষ্টোর, ০১টি জুতার দোকান এবং ০১টি জুয়েলারি দোকান পুরে শেষ হয়ে যায়। আগুন লাগার খবর পেয়ে রোয়াংছড়ি ও বান্দরবান সদরের ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিটসহ সেনাবাহিনী এবং স্থানীয় জনগন মিলে প্রায় পাঁচ ঘন্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়।

রোয়াংছড়ি বাজারের নিকটবর্তী সেনা ক্যাম্প হওয়ায় আগুনের শুরু থেকে তাদের উপস্থিতির জন্য অনেক জিনিসপত্র রক্ষা করান সম্ভব হয়েছে বলে স্থানীয় ব্যক্তিবর্গ জানান। ধারণা করা হচ্ছে অগ্নিকান্ডে ৬ থেকে ৭ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। পরবর্তীতে বান্দরবান সেনা জোনের পক্ষ হতে রোয়াংছড়ির সাবজোন কমান্ডার মেজর সায়াদ শাহরিয়ার খালেক ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে খাদ্য সহায়তা প্রদান করেন।

খাদ্য সহায়তা প্রদানের সময় তিনি ক্ষতিগ্রস্থদের প্রতি সমবেদনা জানান এবং ধৈর্য্য ধারণ করার জন্য অনুরোধ করেন। স্থানীয় জনসাধারণ তাদের বিপদের সময় সেনাবাহিনীকে পাশে পেয়ে কৃতঙ্গতা প্রকাশ করেন।