বাগেরহাটে ১২ হাজার কিশোরী শিক্ষার্থীদের মাঝে কিশোরী বান্ধব টয়লেট সামগ্রী বিতরণ

মাহফুজুর রহমান বাপ্পী, বাগেরহাট জেলা প্রতিনিধি:  বাগেরহাটে মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও মহিলা মাদ্রাসায় পড়া কিশোরীদের বয়:সন্ধিকালীন প্রজনন স্বাস্থ্যকে নিরাপদ রাখতে প্রায় ১২ হাজার কিশোরী শিক্ষার্থীদের মাঝে কিশোরী বান্ধব টয়লেট সামগ্রী বিতরণ করছে সদর উপজেলা পরিষদ। সোমবার (১৫ জুন) দুপুরে বাগেরহাট সদর উপজেলার শহীদ নায়েক আব্দুল জব্বার মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কিশোরী শিক্ষার্থীদের মাঝে কিশোরী বান্ধব টয়লেট সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন বাগেরহাটের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. কামরুল ইসলাম।

এই কিশোরী বান্ধব টয়লেট সামগ্রী বিতরণ কার্যক্রম যৌথভাবে বাস্তবায়ন করছে নারী উন্নয়ন ফোরাম ও সদর উপজেলা পরিষদ। পর্যায়ক্রমে বাগেরহাট সদর উপজেলার দশ ইউনিয়নের ৬২টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং দুটি মহিলা মাদ্রাসার প্রায় বারো হাজার কিশোরী শিক্ষার্থীদের মাঝে কিশোরী বান্ধব টয়লেট সামগ্রী বিতরণ করবে সদর উপজেলার পরিষদ। বাগেরহাট সদর উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা মো. তানজিল্লুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কিশোরী বান্ধব টয়লেট সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, বাগেরহাট সদর উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ও নারী উন্নয়ন ফোরামের সভাপতি রিজিয়া পারভীন, শহীদ নায়েক আব্দুল জব্বার মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ইব্রাহিম মোল্লা, সহকারি প্রধান শিক্ষক মহিববুল্লাহ, সহকারি শিক্ষক সুপ্রভা মন্ডল, গীতা রানী মন্ডল ও তনয় কুমার বসু প্রমূখ।

বাগেরহাটের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. কামরুল ইসলাম বলেন, কিশোরী বান্ধব টয়লেট সামগ্রী বিতরণের লক্ষ্য হচ্ছে তোমাদের এটি ব্যবহারে অনুপ্রাণিত করা। বাগেরহাট সদর উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা মো. তানজিল্লুর রহমান বলেন, মেয়েদের ব্যবহারের টয়লেট সামগ্রী নিয়ে সমাজের মানুষের মধ্যে খারাপ ধারণা আছে। আমরা যখন দোকানে স্যানিটারী সামগ্রী কিনতে যাই তখন ওই দোকানি লোজলজ্জার ভয়ে তা কাগজে মুড়ে দিয়ে থাকেন। আমরা এখন অনেক সচেতন হয়েছি। স্কুলে পড়া মেয়েরা তাদের বয়:সন্ধিকালীন সময়ে কিশোরী বান্ধব টয়লেট সামগ্রী ব্যবহার করবে। স্কুল চলাকালিন সময়ে হঠাৎ করে মেয়েদের শরীর খারাপ হতে পারে।

তারা যাতে স্কুলে বসে এটি সহজে পেতে পারে তার জন্য উপজেলা পরিষদ এই উদ্যোগ নিয়েছে। স্কুলের পরিচালনা পর্যদেরও এই বিষয়ে সচেতন হতে হবে। তারা স্কুলে পড়া কিশোরী মেয়েদের জন্য আলাদা বরাদ্দ রাখারও পরামর্শ দেন এই কর্মকর্তা। বাগেরহাট সদর উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ও নারী উন্নয়ন ফোরামের সভাপতি রিজিয়া পারভীন বলেন, স্কুলে পড়া কিশোরীদের বয়:সন্ধিকালীন প্রজনন স্বাস্থ্যকে নিরাপদ রাখতে বাগেরহাট উপজেলা পরিষদ থেকে কিশোরী বান্ধব টয়লেট উপকরণ সামগ্রী বিতরণ করার উদ্যোগ নিয়েছে।

বাগেরহাট সদর উপজেলার নারী উন্নয়ন ফোরাম এই উদ্যোগ বাস্তবায়নে সদর উপজেলার ৬২টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও দুটি মহিলা মাদ্রাসায় কমনরুমকে জেন্ডার বান্ধব করতে প্যাডেল বক্স, স্যানিটারী ন্যাপকিন, ড্রেসিং টেবিল এবং আয়না বিতরণ করা হচ্ছে। নারীর প্রজনন স্বাস্থ্যকে নিরাপদ রাখতে স্যানিটারী ন্যাপকিন ব্যবহারের কোন বিকল্প নেই। নারীর প্রজননে সক্ষমতার বিষয়টি মাসিকের মাধ্যমে প্রকাশ ঘটে। কিন্তু এই বিষয়টি নিয়ে প্রকাশ্যে আলোচনা করতে কিশোরীরা অনেক সময় বিব্রতবোধ করে। এতে ওই কিশোরীদের শারীরিক ও মানষিক স্বাস্থ্য বাধাগ্রস্থ হয়। এই কিশোরীরা যাতে তাদের বয়:সন্ধিকালীন সময়ে তাদের এই স্বাভাবিক শারীরিক পরিবর্তনকে গোপণ না রেখে প্রকাশ করতে পারে এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারে। এই কিশোরীরা লোকলজ্জা ভুলে নিজেরা সচেতন হবে সেজন্য এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।