বাগেরহাটে র‍্যাবের সাথে বন্দুক যুদ্ধে মিনা কামাল ওরফে ফাটা কেষ্ট নিহত

মাহফুজুর রহমান বাপ্পী, বাগেরহাট জেলা প্রতিনিধি: বাগেরহাটের রামপাল উপজেলার ভেকটমারি এলাকায় র‍্যাবের সাথে বন্দুক যুদ্ধে মো. মোস্তফা কামাল মিনা ওরফে ফাটা কেষ্ট (৫৫) নামে এক ব্যক্তি নিহত
হয়েছেন।

নিহত মোস্তাফা কামালের বিরুদ্ধে খুলনার বিভিন্ন থানায় খুনসহ ২৫টি মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছে র‍্যাব। কামাল পুলিশের তালিকাভুক্ত শীর্ষ সন্ত্রাসী। গোলাগুলির পর ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি পিস্তল ও তিনটি গুলি, ধারালো অস্ত্র, একটি ম্যাগজিন, পাঁচশ পিস ইয়াবা, নগদ ৬৭ হাজার টাকা উদ্ধার
করা হয়।

বৃহষ্পতিবার ভোর পাঁচটার দিকে খুলনা-মোংলা মহাসড়কের বাগেরহাটের রামপাল উপজেলার কয়লা ভিত্তিক তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের কাছে ভেকটমারি এলাকায় এই গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। নিহত মোস্তফা কামালের বাড়ি খুলনার রুপসা উপজেলার নৈহাটি গ্রামে। তিনি

রুপসার নৈহাটি ইউনিয়নের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ছিলেন।র‍্যাব-৬ এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্ণেল রওশনুল ফিরোজ জানান, খুলনা-মোংলা মহাসড়কের বাগেরহাটের রামপাল উপজেলার কয়লা ভিত্তিক তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের কাছে ভেকটমারি এলাকায় পুলিশের তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী ও শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ি মোস্তফা
কামাল তার বাহিনী নিয়ে অবস্থান করছে এই গোপণ সংবাদের ভিত্তিতে র‍্যাব অভিযানে যায়। মাদক ব্যবসায়িরা র‍্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলি ছুড়তে শুরু করে।

এসময় র‍্যাবও পাল্টা গুলি চালায়। প্রায় ১৫ মিনিট গোলাগুলির পর মাদক ব্যবসায়িরা দৌড়ে পালিয়ে যায়। পরে র‍্যাব সেখান থেকে একজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পায়। তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় রামপাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। গোলাগুলির পর ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি পিস্তল ও তিনটি গুলি, ধারালো অস্ত্র, একটি ম্যাগজিন, পাঁচশ পিস ইয়াবা, নগদ ৬৭ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়। নিহত মোস্তফা কামালের বিরুদ্ধে খুলনার বিভিন্ন থানায় খুন, চাঁদাবাজি, অপহরণ, নারী নির্যাতন অস্ত্র মামলাসহ ২৫টি মামলা রয়েছে।

নিহত কামাল পুলিশের তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী ও শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ি বলেও জানান এই র‍্যাব কর্মকর্তাবাগেরহাট পুলিশ সুপার পংকজ চন্দ্র রায় জানান, রামপাল থানা পুলিশ বৃহস্পতিবার সকালে তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র এলাকায় বন্দুক যুদ্ধে একজন মারা গেছে খবর পেয়ে মৃত দেহ উদ্ধার করে বাগেরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে। ময়না তদন্ত শেষে পরিবারের কাছে মৃতদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে।