বাগমারায় সরকারি জমি জবর দখল এবং রাস্তায় আবর্জনা ফেলার প্রতিবাদে মানবন্ধন

নুর কুতুবুল আলম, বাগমারা প্রতিনিধি: রাজশাহীর বাগমারায় সরকারি জমিজমা জবর দখল এবং রাস্তায় ময়লা আবর্জনা ফেলার প্রতিবাদে মানববন্ধ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার বিকেলে উপজেলার গনিপুর ইউনিয়নের মাঝিগ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে ঘন্টাব্যাপী এ মানববন্ধন করা হয়।

মাবনবন্ধনে মাঝিগ্রামের রেজাউল করিম,বজলুল করিম গং তাঁদের বাড়ীর সামনের ইট সোলিং রাস্তার পাশে ময়লা আবর্জনা,মল, মূত্র, পশু-পাখীর বিষ্ঠা ফেলে জনচলাচলে বাধার সৃষ্টি করা হচ্ছে বলে উল্লেখ করা হয়। এছাড়াও সরকারি রাস্তার ১০/১২ ফিট দখল করে গবাদীপশু রাখেন। বিবাদমান ভূ-সম্পত্তিতে একটি বাঁক রয়েছে। বাঁক অতিক্রমের সময় প্রায় পথচারীদের সাথে অশালীন আচরণ করেন সংশ্লিষ্টরা। অপর দিকে অবসর প্রাপ্ত সেনা সার্জেন্ট এবং সৈনিকলীগ নেতা যোবায়েদ হোসেন তাঁর বাড়ির সামনে খাস জমিজমা দখল করে স্থায়ী পাকা স্থাপনা নির্মাণের মাধ্যমে মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর ছবি সাঁটিয়ে জবর দখলে রয়েছেন বলে স্থানীয়দের ভাষ্য।

মাঝিগ্রামের মৎস্যচাষী ও ব্যবসায়ী আব্দুস সামাদ প্রাং, পল্লী চিকিৎসক রায়হান কবীর, সাজ্জাদ হোসেন বাবুল, শেখ পাড়ার ইশ্রাফিল মাষ্টার, বালানগর গ্রামের মৎস্যচাষী বাবুল আক্তারসহ বেশ কয়েক জন জানিয়েছেন, মাঝিগ্রাম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে বাঁক (টার্নিং) অতিক্রমের সময় একডালা সরঃ প্রাঃ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা কহিনূর বেগম এবং তাঁর ভাবী শাহিদা বিবি ঝাঁটা, বাঁশের লাঠি হাতে প্রায় সময় পথচারীদের হেনেস্তা করেন।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষিকা কহিনূর বেগম, শাহিদা বিবি কাছে সরাসরি জানতে চাইলে তাঁরা বলেন, আমরা সরকারি কোন জমি জমা ভোগ দখলে নেই, বরং দুই হাত জায়গা রাস্তার জন্য ছেড়ে দিয়েছি। অপর অভিযুক্ত অবসর প্রাপ্ত সেনা সার্জেন্ট যোবায়েদ হোসেন বলেন, জান্নাতুন ফেরদৌসের বাড়ীর সানসেটটি কোথায় আছে লক্ষ্য করেছেন ? আমি আট ফিট রাস্তা রেখে বাড়ি নির্মাণ করেছি।

খাস জমি দখলে থাকলে সরকারি জরিপকারী এনে বের করে দিবো বলে দম্ভ প্রকাশ করেন। জরুরি ভিত্তিতে প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণ না করা হলে, রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের রূপ নিতে পারে বলে মনে করছেন স্থানীয়রা। এলাকাবাসী শতাধিক ব্যক্তিবর্গের স্বাক্ষর সম্বলিত একটি অভিযোগ উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর দাখিল করেছেন। বাগমারা উপজেলা নির্বাহী অফিসার শরিফ আহম্মেদ অভিযোগ প্রাপ্তি নিশ্চিত করে মুঠোফোনে বলেন, ঘটনাস্থল পরিদর্শনে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ওই খানে যাবেন।