বাগমারায় গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে মতবিনিময় করলেন ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক এম.পি

মো: নুর কুতুবুল আলম, বাগমারা প্রতিনিধি: রাজশাহীর বাগমারায় করোনা ভাইরাস সংকট মোকাবেলায় স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে মতবিনিময় করেছেন ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক এম.পি। আজ বুধবার বেলা ১১ টায় উপজেলা আ’লীগের দলীয় কার্যালয় বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর কমপ্লেক্সের সালেহা ইমারত মিলনায়তনে এই মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে এমপি এনামুল হক বলেন, করোনা কালীন সময়ে সরকার, রাজনৈতিক নেতাকর্মীর পাশাপাশি, চিকিৎসক, প্রশাসন, আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী এবং গণমাধ্যম কর্মীদের ভূমিকা অপরিসীম। এই মহামারি দুর্যোগ করো একার পক্ষে মোকাবেলা করা সম্ভব নয়। সকলের সম্মিলিত প্রয়াসই এই সংকট সমাধানের মূল ভিত্তি।

করোনাকে পুঁজি করে কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান স্বার্থ হাসিল করতে না পারে সে বিষয়ে গণমাধ্যম কর্মীদের সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে। করোনা সংকটে সরকারের পাশাপাশি, ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান এবং রাজনৈতিক ব্যক্তিগণ খাদ্য সামগ্রীর পাশাপাশি নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান করে আসছে। কোন ব্যক্তি যেন করোনা সংকটে না খেয়ে থাকে সে দিকে নজর রাখতে হবে। অন্যদের মতো গণমাধ্যম কর্মীরাও করোনা সংকটে ঝুঁকি নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। এমন মুহূর্তে কেউ যেন বিভ্রান্তিকর তথ্য প্রকাশ না করে সে ব্যাপারে গণমাধ্যম কর্মীদের আহ্বান জানান। তিনি আরো বলেন, বাগমারা উপজেলায় কোন ব্যক্তি যেন খাদ্য সংকটে না থাকে সে লক্ষ্যে আমার ব্যক্তিগত উদ্যোগে একটি কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে।

সরকারের পাশাপাশি সেখান থেকেও খাদ্য সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে। দেশের চলমান করোনা সংকট কালে প্রতিটি ব্যক্তিকে মানবিকতার পরিচয় নিয়ে এগিয়ে আসতে হবে। সাংবাদিকরা জাতির বিবেক। মনগড়া কোন তথ্য দিয়ে সংবাদ যেন প্রকাশ করা না হয় সেদিকে দৃষ্টি দেয়ারও কথা বলেন তিনি। অপরদিকে যে সকল ব্যক্তি দেশের বিভিন্ন স্থানে রয়েছেন তারা যদি নিজ এলাকায় ফিরতে চান সে ব্যাপারেও সহযোগিতা করবেন বলে আশ্বাস প্রদান করেন। বাগমারায় করোনা সংকট মোকাবলোয় প্রশাসন, আইন শৃংখলা বাহিনী এবং রাজনৈতিক ব্যক্তিদের পাশাপাশি গণমাধ্যম কর্মীদের অবদান রয়েছে। তবে বাগমারায় এক জনের করোনা পজেটিভ হলেও তিনি নিজ এলাকায় আক্রান্ত হন নি। তিনি নারায়নগঞ্জ থেকে করোনা পজেটিভ হয়েই এসেছেন। চিকিৎসকদের যথা সময়ে চিকিৎসা আর নিয়ম মেনে বাড়িতে অবস্থান করায় তিনি নিরাপদে আছে। কোন ব্যক্তির জ্বর,সর্দি, কাশি হলেই সে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে এমনটি মনে করে নিউজ করার দরকার নেই। শনাক্ত হওয়ার পরে বিষয়টি আলাদা। জোর করে কোন ব্যক্তির বাড়ি লকডাউন করা যাবে না।

কেউ যেন এরকম করতে না পারে সে বিষয়ে গণমাধ্যম কর্মীদেরও খোঁজ রাখা দায়িত্ব। করোনা সংকট মোকাবেলায় সরকারের নির্দেশনা মেনে চলা এবং যার যার অবস্থান থেকে দেশ ও দশের কল্যাণে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। সংবাদকর্মীদের মধ্যে আলোচনায় অংশ গ্রহণ করেন,বাগমারা প্রেসক্লাবের সভাপতি ইউসুফ আলী সরকার, সাধারণ সম্পাদক রাশেদুল হক ফিরোজ, সাবেক সভাপতি আফাজ্জল হোসেন, আলতাফ হোসেন, সাংবাদিক মাহফুজুর রহমান প্রিন্স, জিল্লুর রহমান, আবু বাক্কার সুজন, নাজিম হাসান, সামসুজ্জোহা মামুন শাহ, নুর কুতুবুল আলম সহ অন্যরা।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি মতিউর রহমান টুকু, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ গোলাম সারওয়ার আবুল, দপ্তর সম্পাদক ইসমাইল হোসেন বেঙ্গল, সহ-দপ্তর সম্পাদক নুরুল ইসলাম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান আসাদ, কাউন্সিলর হাচেন আলী প্রমুখ। ছবি আছে।