বসুরহাট পৌরসভার উন্নয়নের কারিগর আবদুল কাদের মির্জা

হাসান ইমাম রাসেল, নোয়াখালী প্রতিনিধি: বসুরহাট পৌরসভার নির্বাচনে জয়ী হয়ে ওয়াদা অনুযায়ী এক এক করে পূরণ করলেন নিজের দেওয়া সকল ওয়াদা। তাই উন্নয়ন আর কাদের মির্জা এক সূত্রে গাঁথা হয়ে গেছে বসুরহাট পৌরবাসীর কাছে। আর এতে খ শ্রেণীর পৌরসভাকে ক শ্রেণীতে উন্নীত করেন তিনি।

এ ছাড়া রাস্তাঘাট, ব্রিজ-কালভার্ট, মার্কেট, পার্ক সহ বিভিন্ন স্থানে রয়েছে উন্নয়নের ছোঁয়া নির্মাণ করেছেন ৪ কোটি টাকা ব্যয়ে ঝুলন্ত পৌর স্বপ্নপুরী মার্কেট। নাগরিকদের বিনোদনের জন্য নির্মাণ করেছেন পৌর মিনি শিশু পার্ক। তিনি বসুরহাট পৌরসভার সাধারণ মানুষের দীর্ঘদিনের দাবি যানজট মুক্ত করতে বসুরহাট নিত্যানন্দন মোড়ের চারটি ঘর ভেঙে রাস্তা প্রশস্ত করা হয় এবং ঘরের মালিকগণকে উপযুক্ত ন্যয্য পাওনা বুঝিয়ে দিয়ে যানজট নিরসনে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন শিক্ষার মানোন্নয়নে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের,

শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করেন। এবং প্রতি বছর ঈদ উৎসবে মসজিদ, মন্দির, ও দূর্গাপুজা উপলক্ষে প্রায় ৫ হাজার অসুস্থ, অসহায় ও দুস্থ জনগণের মাঝে নগদ অর্থ ও খাদ্য সামগ্রী সহায়তা প্রদান করেন। তিনি তার উন্নয়নের অংশহিসেবে চলমান রয়েছে ৯০ কোটি টাকা ব্যয়ে বিশুদ্ধ ( ওয়াসা পানি) পানির কাজ ও বসুরহাট বাস স্টেশন থেকে করালিয়া বাইপাস সড়ক এ ছাড়া করোনাকালে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সহযোগিতায় প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন আইসোলেশন সেন্টার সহ বিভিন্ন কর্মসূচী গ্রহণ এবং করোনা রোগীদের আর্থিক সহযোগিতা প্রদান করেন।

তিনি জানান, উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে তিনি আগামী দিনে আবর্জনামুক্ত,মাদকমুক্ত, সন্ত্রাস ও সালিশ বাণিজ্যমুক্ত শিক্ষা ও স্বাস্থ্য সম্বলিত দারিদ্রমুক্ত, জেন্ডার বৈষম্যহীন,অসাম্প্রদায়িক, পরিবেশ বান্ধব এবং আধুনিক সকল সুযোগ-সুবিধা সম্বলিত একটি পরিকল্পিত আধুনিক পরিষ্কার – পরিচ্ছন্ন পৌরসভা হিসেবে নিজের ভিশন উপস্থাপন করেন। এ দিকে আধুনিক সকল সুযোগ-সুবিধা সম্বলিত একটি আধুনিক পৌরসভা গঠনের জন্য আগামী ১৬ জানুয়ারি বসুরহাট পৌরসভা নির্বাচনে সকলের দোয়া চেয়েছেন।