‘বসন্তের কোকিল’ নয়, আমরা ত্যাগী কর্মী চাই; কাদের

দুর্নীতিবাজ, চাঁদাবাজ, মাদক ব্যবসায়ী, লুটেরা, সন্ত্রাসীরা সাবধান। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অ্যাকশন শুরু হয়ে গেছে। বসন্তের কোকিলদের নিয়ে দল ভারী করার প্রস্তাব করবেন না। আমরা বসন্তের কোকিল চাই না বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। সোমবার (১১ নভেম্বর) দুপুরে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউশনে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিণের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।
এসময় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে ওবায়দুল কাদের বলেন, আপনারা কেউ ক্ষমতার দাপট দেখাবেন না। ক্ষমতা চিরস্থায়ী নয়। বসন্তের কোকিলদের নিয়ে দল ভারী করার প্রস্তাব করবেন না। আমরা বিশ্বাসী, সাহসী এবং ত্যাগী কর্মী চাই। আমি আমাদের প্রতিটি সংগঠনের নেতাকর্মীদের বলতে চাই, দলে কোনো দূষিত রক্ত চাই না। দলে বিশুদ্ধ রক্ত সঞ্চালন করতে হবে। ক্লিন ইমেজের কর্মীদের সংগঠনে যুক্ত করতে হবে।
শুদ্ধি অভিযান প্রসঙ্গে কাদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অ্যাকশন শুরু হয়ে গেছে। শেখ হাসিনার সৎ সাহস আছে বলেই তিনি নিজের ঘর থেকে শুদ্ধি অভিযান শুরু করেছেন। কেউ ছাড় পাবে না। শুধু আওয়ামী লীগ না, অন্য দলেও যারা বড় বড় কথা বলছে, তাদের সম্পর্কেও খোঁজ নেওয়া হচ্ছে। কারা কারা দুর্নীতি করে আঙুল ফুলে কলাগাছ হয়েছে, প্রশাসনে কারা কারা দুর্নীতিবাজ, তার খোঁজও নেওয়া হচ্ছে। সবক্ষেত্রে খারাপ লোকদের খুঁজে খুঁজে বের করা হবে।
প্রধানমন্ত্রী সম্পর্কে ওবায়দুল কাদের বলেন, আমাদের নেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্বের তিনজন সৎ রাষ্ট্রনায়কের একজন। আমাদের নেত্রী বিশ্বে প্রথমসারির প্রভাবশালী নেতাদের মধ্যে একজন। বিশ্বের সেরা দুইজন প্রধানমন্ত্রীর একজন। পিতা বঙ্গবন্ধুর মতোই তার জীবনকে বুলেট তাড়া করে ফেরে। আমরা যদি সততা ও সাহসের সঙ্গে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের পতাকা হাতে এগিয়ে যাই, কোনো শক্তি আওয়ামী লীগের অগ্রযাত্রা রুখতে পারবে না।
এসময় আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক জানান, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ও উত্তর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি-সম্পাদকের নাম আগামী ১৬ নভেম্বর স্বেচ্ছাসেবক লীগের জাতীয় সম্মেলনে ঘোষণা করা হবে।

এর আগে, অনুষ্ঠানের উদ্বোধন ঘোষণা করেন সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক নির্মল রঞ্জন গুহ। সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন স্বেচ্ছাসেবক লীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি বাবু দেবাশীষ বিশ্বাস, পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক আরিফুর রহমান টিটু।
সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিষ্ঠাকালীন সভাপতি কৃষিবিদ বাহাউদ্দিন নাছিম, সম্মেলন প্রস্ততি কমিটির আহ্বায়ক নির্মল রঞ্জন গুহ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিণের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গাজী মেজবাহ হোসেন সাচ্চু সহ আরো অনেকে।