বরিশালে করোনা আক্রান্তরা স্বাস্থ্যবিধি না মানায় নতুন শনাক্তের সংখ্যা বাড়ছে

প্রিন্স তালুকদার, বরিশাল প্রতিনিধি:  বরিশাল বিভাগের ৬ জেলায় এ পর্যন্ত মোট ১ হাজার ৭০১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ। যার মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৪৪৫ জন এবং মৃত্যু হয়েছে মোট ৩৪ জনের। বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালকের কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, মোট শনাক্তের মধ্যে বরিশাল বিভাগে এ পর্যন্ত হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিয়েছে ২৯৬ জন।

সেই হিসেবে ৮২ শতাংশের মতো করোনায় আক্রান্ত রোগী হাসপাতালের দ্বারস্থ হননি। অভিযোগ রয়েছে, আক্রান্তদের অনেকেই স্বাস্থ্যবিধি না মানায় বরিশালে নতুন শনাক্তের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। স্বাস্থ্য বিভাগ যদিও বলছে, করোনা শনাক্ত হওয়ার পর ওই রোগীর সাথে যোগাযোগ করে তাকে নিয়মনীতি ও চিকিৎসাপত্র বুঝিয়ে দেয়ার দায়িত্ব তারা পালন করছেন। তবে আক্রান্ত রোগীদের বাসায় থাকা নিশ্চিত করার দায়িত্ব প্রশাসনের বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য বিভাগ। তবে স্থানীয় প্রশাসন বলছে, স্বাস্থ্যবিভাগ থেকে পর্যাপ্ত জনবল না দেয়া হলে নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা ব্যহত হবে।

তবে যে সকল এলাকাতে রোগী শনাক্তের সংখ্যা বাড়ছে সেখানে লকডাউন কার্যক্রম চলমান রয়েছে বলে জানিয়েছে জেলা প্রশাসন। বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক কার্যালয়ের সহকারি পরিচালক ডাঃ শ্যামল কৃষ্ণ মন্ডল বলেন, যাদের করোনা শনাক্ত হচ্ছে তাদের কিছু রোগীর কোন লক্ষণ থাকে না, কিছু রোগীর মৃদু লক্ষণ থাকে। আমরা এ ধরনের রোগীকে লক্ষণ অনুযায়ী মৃদু, মাঝারি, তীব্র, মারত্মক তীব্র এ ধরনের ৪ থেকে ৫ টি ভাগে ভাগ করে থাকি। তিনি বলেন, বরিশালে মৃদু এবং মাঝারি অর্থাৎ নিয়মোনিয়ার আগ পর্যন্ত রোগীর সংখ্যাটা একটু বেশি।

এক্ষেত্রে অনেক রোগীর কোনো চিকিৎসার প্রয়োজন হয়না শুধু শারিরীক পরিচর্যার প্রয়োজন, আবার কিছু আছে সামান্য চিকিৎসার প্রয়োজন হয়। এসব রোগীর সংখ্যা বেশি হওয়ায় আমরা বাসায় থেকে চিকিৎসা নেয়ার সংখ্যাটা বেশি। আর বাসায় থেকে চিকিৎসা নেয়া সুস্থ রোগীর সংখ্যাটাও বেশি। এদিকে বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডাঃ বাসুদেব কুমার দাস জানিয়েছেন, বিভাগের মধ্যে এ পর্যন্ত বরিশাল জেলায় ৯৯৭ জন, পটুয়াখালীতে ১৯৬, ভোলায় ১৪০ পিরোজপুরে ১২৭, বরগুনায় ১৪০ ও ঝালকাঠিতে ১০১ জনের করোনা পজেটিভ শনাক্ত হয়েছে। যার মধ্যে গোটা বিভাগে ৪৪৫ জন করোনা পজিটিভ রোগী সুস্থ্য হয়েছেন। যাদের এরই মধ্যে ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে।