বন্ধুত্বের প্রতিদান অপহরণে

মোঃ রাশেদ, চট্টগ্রাম প্রতিনিধিঃ বন্দুক হাতে গ্রেপ্তার চিংথোয়াই মারমা ওরফে রাজা (বামে) ও অপহৃত ইমরান হোসেন মামুন। শহর থেকে বেড়াতে নিয়ে গিয়ে গহীন পাহাড়ে আটকে রেখে মুক্তিপণ দাবির অভিযোগে চট্টগ্রামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃত চিংথোয়াই মারমা ওরফে রাজা (২৯) খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার পানছড়ির বাসিন্দা। ফটিকছড়ির ভুজপুরের পিনপিনিয়া বড়বিল এলাকার গহীন পাহাড় থেকে শুক্রবার তাকে গ্রেপ্তারের পাশাপাশি অপহৃতকে উদ্ধার করা হয় বলে চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের সহকারী কমিশনার (কোতোয়ালী জোন) নোবেল চাকমা জানান। উদ্ধারকৃত ইমরান হোসেন মামুনের বাড়ি কুমিল্লায়; চট্টগ্রামের কদমতলী এলাকায় ট্রাকে মাল উঠানো নামানোর কাজ করেন তিনি।

নোবেল চাকমা বলেন, মাসছয়েক আগে নগরীতে মিলন চাকমা নামে এক তরুণের সঙ্গে ইমরানের পরিচয় হয়। পরে ইমরান তাকে কাজও যোগাড় করে দেন। ঘনিষ্টতার পর ফেব্রুয়ারিতে ইমরানকে বড়বিলের বাড়িতে নিয়ে যান মিলন। সেখানে ইমরান কয়েকদিন থাকেনও। “২০ জুলাই মিলন আবারও তাদের বাড়িতে ইমরানকে বেড়াতে যাওয়ার প্রস্তাব দেয়। এবার সেখানে যাওয়ার সাথে সাথে বন্দুকের মুখে তাকে আটকে ফেলে মিলন তার পরিবারের কাছে দুই লাখ টাকা দাবি করে।

খবর পেয়ে গহীন পাহাড়ে অভিযান চালিয়ে চিংথোয়াইকে একটি বন্দুকসহ গ্রেপ্তার করে ইমরানকে উদ্ধার করা হলেও ‘অপহরণের হোতা’ মিলন আগেই মিলন পালিয়ে যায় হয় বলে জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা। নোবেল বলেন, “গহীন পাহাড়ে একটি কুঁড়ে ঘরে ইমরানকে আটকে রাখা হয়েছিল। চিংথোয়াই ছিল তার পাহারাদার।” মিলনের বাড়ি খাগড়ছড়ি হলেও থাকেন ভুজপুরের পিনপিনিয়া।