বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাই-টেক পার্কে বৃক্ষরোপণ, উদ্যোক্তাদের মাঝে স্পেস বরাদ্দ ও সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর

সৈয়দ মাসুদ, রাজশাহী প্রতিনিধি: মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে আইসিটি বিভাগের উদ্যোগে সারাদেশে এক লক্ষ বৃক্ষের চারা রোপণ কর্মসূচির অংশ হিসেবে ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাই-টেক পার্ক, রাজশাহী প্রাঙ্গণে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন,

শেখ কামাল আইটি ইনকিউবেটর এন্ড ট্রেনিং সেন্টারে তরুণ উদ্যোক্তাদের জন্য স্পেস বরাদ্দপত্র হস্তান্তর এবং রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের আওতায় কনভেনশন হল স্থাপনের জন্য জমি বরাদ্দের সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে। শুক্রবার সকালে আয়োজিত এসব অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মাননীয় এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন।

উদ্বোধক ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, এমপি। এসময় ৭৫ এর ১৫ আগষ্টে নিহতদের স্বরনে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট স্বাধীনতার মহান স্থপতি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যা করে পাকিস্তানের স্বাধীনতা বিরোধীরা।

তারা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে ভেবেছিলো এই দেশে আর কখনো জয় বাংলা ধ্বনি উচ্চারিত হবে না। কিন্তু তাদের সেই ভ্রান্ত ধারণা ভুল প্রমাণিত হয়েছে। মেয়র লিটন আরো বলেন, শেখ কামাল আইটি ইনকিউবেশন এন্ড ট্রেনিং সেন্টার থেকে ট্রেনিং নিয়ে এখানকার তরুণ-তরুণীরা নিজের পায়ে দাঁড়াতে পারবে।

এখন থেকে আর চাকুরির পেছনে ছুটতে হবে না, নিজেরাই উদ্যোক্তা হয়ে মানুষকে চাকুরি দিবে। আগামী দিনে আইসিটি হবে দেশের আয়ের অন্যতম বৃহৎ খাত। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি তাঁর বক্তব্যে বলেন, আগস্ট শোকের মাস।

এই মাসেই আমরা হারিয়েছি জাতির পিতাকে। এই শোকের মাসেই শোককে শক্তিতে রূপান্তর করে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে আমরা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছি। বেকারত্ব দূরীকরণ, কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও বিনিয়োগ আকৃষ্ট করাই আইসিটি বিভাগের অন্যতম লক্ষ্য।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাই-টেক পার্ক’ স্থাপনের কাজ শেষ হলে প্রায় ১৪ হাজার জনের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে। তিনি বলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী পর্যায়ক্রমে দেশের প্রতিটি জেলায় ট্রেনিং কাম ইনকিউবেশন সেন্টার স্থাপন করা হবে।

রাজশাহী জেলা প্রশাসক আব্দুল জলিলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজশাহী-৩ আসনের সাংসদ আয়েন উদ্দিন, মহিলা আসন-৩৭ এর সাংসদ আদিবা আনজুম মিতা। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাই-টেক পার্ক,

রাজশাহী’ প্রকল্পের পরিচালক (উপসচিব) জনাব এ. কে. এ. এম ফজলুল হক, রাসিকের কাউন্সিলরবৃন্দ ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।