বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষন উপলক্ষে ফরিদগঞ্জের উপজেলা আওয়ামী লীগ কর্মসূচী পালন করেনি

মোহাম্মদ বিপ্লব সরকার : জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষন উপলক্ষে ফরিদগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যত কোন কর্মসূচী পালন করতে দেখা যায়নি।

এ নিয়ে ফরিদগঞ্জে খোদ ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীরা উপজেলা আওয়ামী লীগের ৬৭ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির নেতাকর্মীর ভূমিকা নিয়ে নানাহ প্রশ্ন উঠেছে। তবে ঐতিহাসিক ওই ভাষন নিয়ে পৃথক আয়োজনে উপজেলা যুবলীগ ও পৌর যুবলীগ আলোচনা সভা করেছে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের অস্থায়ী কার্যালয়ে মাইকে শুধু বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষন প্রচার ছাড়া উক্ত দিবসের স্মৃুতি চারন হিসেবে বিগত বছরগুলোর মতো নেতাকর্মীদের ছিলনা সমাগম , ছিল না কোন সভা সেমিনার। এ নিয়ে দলের নেতাকর্মীরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলছে, সারাদেশ ব্যাপী যেখানে বর্নাঢ্য আয়োজনে এই মাসের ১৭ মার্চ মজিব শতবর্ষ পালনের অপেক্ষার প্রহর গুনছে।

ঠিক এমন এক গুরুত্বপূর্ণ মাসে ফরিদগঞ্জে আওয়ামী লীগের উদ্যেগে ঐতিহাসিক ভাষনের স্মুতি চারন করতে কোন আনুষ্ঠানিক আলোচনা সভা না করায় ক্ষুদ্ধ অনেকেই। এদিকে পৃথক আয়োজনে ঐতিহাসিক ৭ মার্চে বঙ্গবন্ধুর ভাষন নিয়ে স্থানীয় সাংসদ জাতীয় প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মুহম্মদ শফিকুর রহমানের নির্দেশে উপজেলা যুবলীগ ফরিদগঞ্জ বাজারের সবুজ মার্কেটে আলোচনা সভা করেছে।

উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক আবু সুফিয়ান শাহীনের সভাপতিত্বে সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক , উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিং এর সভাপতি হেলাল উদ্দিনের পরিচালনায় ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষনের স্মৃতি চারন করে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এই সভায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আব্দুর রহমান বাবলু, সদস্য মোঃ হোসেন মিন্টু পাটওয়ারী ,উপজেলা যুবলীগের সাবেক আহবায়ক বিল্লাল হোসেন পাটওয়ারী অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে একই সময়ে উপজেলা চেয়ারম্যান আ্যড জাহিদুল ইসলাম রোমানের নির্দেশে ঐতিহাসিক ডাকাবাংলা চত্বরে আয়োজিত পৌর যুবলীগের আহবায়ক সাজ্জাত হোসেন টিটুর সভাপতিত্বে সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক এস এম সোহেল রানার সঞ্চালনায় ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষনের স্মৃতি চারন করে অনুষ্ঠিত হয়ে আলোচনা সভা।

পৌর যুবলীগের আয়োজিত এ আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক, জেলা পরিষদের সদস্য সাইফুল ইসলাম রিপন ও বিশেষ অতিথি হিসেবে হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা যুবলীগের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক হাজী শফিক, যুগ্ম আহবায়ক কামরুজ্জামান সবুজ ও আকবর হোসেন মনির অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে ফরিদগঞ্জে আওয়ামী লীগের কর্মসূচী পালন না করার বিষয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আবু সাহেদ সরকার এ প্রতিনিধিকে বলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতিকে ফোন দেন বলেই তার মোবাইলের সংযোগ বন্ধ করে দেন।

পরে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা আবুল খায়ের পাটওয়ারী বলেছেন, ৭ মার্চ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর এতিহাসিক ভাষন উপলক্ষে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে আমার ভাটিরগাঁও গ্রামের সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে সকাল থেকে রাত ১০ টা পর্যন্ত বঙ্গবন্ধুৃর ভাষন চলেছে। অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি আরো বলেন, আমি অসুস্থতার কারেন এলাকায় না থাকায় উপজেলা আওয়ামী লীগ কোন সভা করেনি।