বগুড়ায় হত্যা মামলায় ৩ জনের ফাঁসি, প্রধান আসামিসহ খালাস ৫

নিয়াজ মোর্শেদ নাইম, দুপচাঁচিয়া,আদমদীঘি প্রতিনিধি: বগুড়ায় ব্যবসায়ী হযরত আলী হত্যা মামলায় তিনজন আসামিকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ এবং অপর ৫ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণ না হওয়ায় খালাস দেয়ার আদেশ দিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার দুপুরে বগুড়ার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক নরেশ চন্দ্র সরকার এই রায় ঘোষণা করেন। মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- বগুড়া শহরের নিশিন্দারা উত্তরপাড়ার মৃত আব্দুল মজিদের ছেলে মিলন ওরফে মারুফ রায়হান (৩৫), নিশিন্দারা আকন্দপাড়ার মহিদুল ইসলামের ছেলে মানিক (২২) ও নিশিন্দারা মধ্যপাড়ার মাসুম মোল্লার ছেলে সাঈদী (২৫)।

মামলায় খালাসপ্রাপ্তরা হলেন- বগুড়া পৌরসভার ১৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জহুরুল ইসলাম মন্ডল, সুজন, শাওন, শাহিনুর ও কাজিম। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আব্দুল মতিন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। মামলা সূত্রে জানা গেছে, ২০১৭ সালের ১৬ এপ্রিল দুপুর ১টার দিকে মামলার আসামি সুজন হযরত আলীকে কৌশলে বাড়ি থেকে ডেকে মোটরসাইকেল যোগে নিয়ে যায়।

হযরত আলীর বাড়ির অদূরে ১৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর অফিসের সামনে তাকে রাম দা দিয়ে কুপিয় হত্যা করে অন্যান্য আসামি। এ ঘটনায় ওই দিনই নিহতের মা মেরিনা বেগম বাদী হয়ে পৌর কাউন্সিলর জহুরুল ইসলামকে প্রধান আসামি করে ৮ জনের নামে বগুড়া সদর থানায় মামলা দায়ের করেন। দুজন তদন্তকারী কর্মকর্তা পরিবর্তনের পর মামলাটি সিআইডিতে পাঠানো হয়।

সিআইডির পুলিশ পরিদর্শক ছকির উদ্দিন একই বছরের ২৯ নভেম্বর এজাহারে উল্লেখিত ৮ জনের নামে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। এরপর বিচার কাজ চলাকালে সাক্ষীদের জবানবন্দি নেয়া শেষে মঙ্গলবার রায় ঘোষণা করা হয়।