ফ্ল্যামেঙ্গোকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন লিভারপুল

ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড রবের্তো ফিরমিনোর এক মাত্র গোলে তার দেশের ক্লাব ফ্লামেঙ্গোকে হারিয়ে ক্লাব বিশ্বকাপের শিরোপা জিতল লিভারপুল।

শনিবার রাতে অতিরিক্ত সময়ে গড়ানো ফাইনালে ১-০ গোলে জিতেছে ইয়ুর্গেন ক্লপের দল। ২০০৫ সালের ফাইনালে ব্রাজিলের দল সাও পাওলোর বিপক্ষে হেরেছিল লিভারপুল। এবার ব্রাজিলিয়ান চ্যাম্পিয়নদের হারিয়ে ইংল্যান্ডের দ্বিতীয় দল হিসেবে ক্লাব বিশ্বকাপের শিরোপা জিতল অল রেডরা।

ম্যাচের শুরু থেকে আক্রমনে এক চেটিয়া দ্য অল রেড প্রথমার্ধে গোলের প্রথম সুযোগটা পেয়েছে ইউরোপ চ্যাম্পিয়নরা তবে সেই সুযোগ কাজে লাগাতে পারেননি রেডদের ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড রবের্তো ফিরমিনো। আর সেকেন্ড হাফে ফিরমিনোকে ঠেকিয়ে গোল পোস্ট অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছে ফ্লামেঙ্গো। ব্রাজিলিয়ান চ্যাম্পিয়নদের কাউন্টার অ্যাটাক থেকে রক্ষা পেয়েছে লিভারপুল। অল রেডদে ক্লিন শিট রেখেছেন ব্রাজিলিয়ান গোলকিপার আলিসন বেকার।

১৪ বছর বাদে ক্লাব ওয়ার্ল্ড কাপের ফাইনালে লিভারপুল প্রতিপক্ষ ব্রাজিলিয়ান চ্যাম্পিয়ন ফ্লামেঙ্গো। ২০০৫ সালে আরেক ব্রাজিলিয়ান জায়ান্ট সাও পাওলোর কাছে ফাইনাল হেরেছিলো লিভারপুল।

পোস্টের নিচে আলিসনকে ভালোই টক্কর দিয়েছেন দিয়েগো আলভেস। অলরেড স্কিপার জর্ডান হ্যান্ডারসনের পর সাদিও মানেকেও হতাশ করেছেন ফ্লামেঙ্গো গোলকিপার। গোল নিল ক্লাব ওয়ার্ল্ড কাপের রেগুলেশন টাইম।

এক ব্রাজিলিয়ানের স্ট্রাইকেই অতিরিক্ত সময়ের ফার্স্ট হাফে কপাল পুরেছে ব্রাজিলিয়ান চ্যাম্পিয়নদের। হেন্ডারসনের লম্বা চাল সাদিও মানের পিন পয়েন্ট সেটআপ রবের্তো ফিরমিনোর ম্যাচ ডিসাইডার।

পিছিয়ে পড়ে অল আউট খেলেছে ফ্লামেঙ্গো গোলের মওকা এসেছে তবে গোল আসেনি। দ্বিতীয় ইংলিশ ক্লাব হিসাবে লিভারপুলের ঘরে এসেছে ক্লাব ওয়ার্ল্ড কাপের শিরোপা। ২০০৮ সালে ক্লাব বিশ্বকাপের ট্রফি জিতেছিলো ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।