ফেনী পৌরসভার বারাহিপুরে ফেসবুক লাইভে এসে স্ত্রীকে খুন

আহসান উল্লাহ, ফেনী প্রতিনিধি: ফেনী পৌরসভার বারাহিপুরে আজ বুধবার দুপুরে পারিবারিক কলহের জের ধরে স্ত্রী তাহমিনা আক্তারকে (২৮) উপর্যুপুরি কুপিয়ে হত্যা করেছে তার স্বামী। মর্মান্তিক ঘটনাটি ফেসবুক লাইভে এসে প্রচারো করেছে ঘাতক নিষ্ঠুর স্বামী। পুলিশ ঘাতক ওবায়দুল হক ভূঁঞা টুটুলকে গ্রেপ্তার করেছে। পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, প্রায় সাড়ে ৩ বছর আগে ফেনী পৌরসভার ৮ নং ওয়ার্ড বারাহিপুর গ্রামের গোলাম মাওলা ভূঁঞার ছেলে ওবায়দুল হক ভূঁঞা টুটুল প্রেম করে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার আকদিয়া গ্রামের সাহাব উদ্দিনের মেয়ে তাহমিনা আক্তারকে বিয়ে করেন। তাদের তাফান্নুন আরোয়া মায়োস নামে ১৮ মাস বয়সের একটি মেয়ে রয়েছে। পারিবারিক সুত্র জানায়, ওবায়দুল হক ভূঁঞা টুটুল ঢাকায় একটি কাপড়ের দোকানে চুকুরী করতো। স্ত্রী ও মেয়ে ফেনীর বাড়ীতেই থাকতো। করোনা ভাইরাস সংক্রমনের পরিপেক্ষিকে ঢাকায় লকডাউন দেওয়া হলে ওবায়দুল হক ফেনীর বাড়ীতে চলে আসেন। স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যার আগমুহুর্তে ভিডিওতে ওবায়দুল হক সকলের কাছে মাফ চায় এবং ঘটনার জন্য সে নিজেরই দায়ী বলে স্বীকার করেন। এছাড়া পারিবারিক অশান্তির জন্য স্ত্রীকে দায়ী করেন। তার স্ত্রী পরিবারকে ব্লাকমেইল করতো বলেও দাবী করেন। আজ থেকে তার পরিবার আর কোন ব্লাকমেইলের শিকার হবেনা। তিনি ভিডিওতে তার মেয়েটাকে ও ভাই-বোনকে দেখভালের জন্য সবার কাছে অনুরোধ করেন। ফেনী মডেল থানার ওসি (তদন্ত) মোহাম্মদ সাজেদুল ইসলাম পারিবারিক কলহের জের ধরে স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যার দায়ে স্বামীকে গ্রেপ্তারের সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, লাশ ফেনী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। মামলার প্রস্তুতি চলছে।