ফর্সাকারী ক্রিম বিক্রি-বিতরণ বন্ধে নির্দেশ দিয়েছে বিএসটিআই

পাকিস্তানি ৮টি ব্রান্ডের রং ফর্সাকারী ক্রিমে মাত্রাতিরিক্ত পারদ এবং হাইড্রোকুই্নোনের উপস্থিতি পেয়েছে বিএসটিআই।

সার্ভিল্যান্স টিমের মাধ্যমে খোলাবাজার থেকে সংগ্রহ করা বিভিন্ন ব্রান্ডের ১৩টি রং ফর্সাকারী ক্রিমের মধ্যে ৮টি ক্রিমে মাত্রাতিরিক্ত পারদ (মার্কারি) এবং হাইড্রোকুইনোনের উপস্থিতি পেয়েছে মান নিয়ন্ত্রণকারী প্রতিষ্ঠান বিএসটিআই। বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ড অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশন-বিএসটিআই তাদের নিজস্ব ল্যাবে পরীক্ষা চালিয়ে বিপজ্জনক মাত্রার ক্ষতিকর পারপদ এবং হাইড্রোকুইনোনের উপস্থিতি সম্পর্কে নিশ্চিত হয়েছে।

সোমবার (২রা মার্চ) বিএসটিআইয়ের পরিচালক (সিএম) প্রকৌশলী সাজ্জাদুল বারী স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত কর হয়েছে।

উল্লেখ্য, স্ক্রিন ক্রিমের বাংলাদেশ সংশ্লিষ্ট মান এ মার্কারি এবং হাইড্রোকুইনোনের গ্রহণযোগ্য সর্বোচ্চ মাত্রা যথাক্রমে ১ পিপিএম এবং ৫ পিপিএম।

এ অবস্থায়, জনস্বাস্থ্য রক্ষার স্বার্থে মাত্রাতিরিক্ত পারদযুক্ত এসব রং ফর্সাকারী ক্রিম বিক্রি-বিতরণ বন্ধে নির্দেশ দিয়েছে বিএসটিআই। তা না হলে আমদানিকারক, সরবরাহকারী ও বিক্রেতাদের (অনলাইনসহ) বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে বিএসটিআই।