ফতুল্লায় সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদাবাজির সময় রুহুল আমীন গ্রেফতার

সফিকুল ইসলাম জনি, ফতুল্লা প্রতিনিধি:  নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লা দাপায় দূর্নীতি দমন কমিশন কর্মকর্তা ও সাংবাদিক পরিচয়ে চাদাঁবাজী করতে গিয়ে স্থানীয় জনতার হাতে রুহুল আমীন(৪৫) নামক এক ভুয়া সাংবাদিক আটক হয়েছে। পরে তাকে পুলিশের হাতে সোপর্দ করা হয়।এ সময় আটককৃতের সাথে আসা অপর তিন সহোযোগি একটি নোয়া মাইক্রোবাসে করে পালিয়ে যায় বলে স্থানীয়রা জানায়। আটককৃত রুহুল আমীন জেলার বন্দর থানার পদুঘর গ্রামের মৃত আবু বক্কর সিদ্দিকের পুত্র বলে জানা যায়।

ঘটনার বিবরনীতে জানা যায়, রবিবার বেলা সাড়ে এগারোটার দিকে দূর্নীতি দমন কমিশন কর্মকর্তা ও সাংবাদিক পরিচয়ে দাপা মসজিদ এলাকার কাজী বাড়ীর খোরশেদ কাজীর বাড়ীতে প্রবেশ করে গ্যাস এবং বিদ্যুৎ বিলের কাগজ দেখতে চায় আটককৃত রুহুল আমীন ও তার সহোযোগি ফতুল্লার পঞ্চবটি ফাজিলপুর এলাকার মৃত সুলতান সর্দারের পুত্র স্বপন সর্দার। এ সময় ব্যবসায়ী খোরশেদ কাজীর পুত্র তরুন কাজী তাদেরকে বাসা থেকে তাদের ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠানে নিয়ে এসে সকল কাগজ পত্র প্রদর্শন করে।

কিন্তু তারা বিলের কাগজের সাথে তাদের গ্যাসের চুলার সাথে অসঙ্গতির দোহাই দিয়ে চাদাঁ দাবী করলে উপস্থিত লোকজনের মনে সন্দেহের সৃস্টি হয়। এ সময় অবস্থা বেগতিক বুজতে পেরে দূর্নীতি দমন কমিশন রিপোর্ট মনোগ্রাম সম্বলিত একটি নোয়া গাড়ীতে করে পালিয়ে যাওয়ার চেস্টা করলে স্থানীয়বাসী ধাওয়া করে রুহুল আমীন কে আটক করতে সক্ষম হলেও এই চক্রের মূল হোতা ইরান মজুমদার ও তার সহোযোগি স্বপন সর্দার ওরফে তেল চোরা স্বপন গাড়ি নিয়ে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।

এ বিষয়ে ফতুল্লা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আসলাম হোসেন জানায়, সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে অফিসার পাঠিয়ে একজনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। ঘটনাস্থল পালিয়ে যাওয়া অপর সদস্যদের ও গ্রেফতার করা হবে এবং এ বিষয়ে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে তিনি জানান।